জ্যোতিষশাস্ত্র

আজ বাবা লোকনাথের তিরোধান দিবস, মেনে চলুন তাঁর এই উপদেশ, জীবনে সমৃদ্ধি লাভ হবে

কথিত রয়েছে, বাংলাদেশের নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের বারদী আশ্রমে লোকনাথ ব্রহ্মচারী সমাধি লাভ করেছিলেন। বারদীতে থাকাকালীন এক ভক্ত তাঁর ছেলের যক্ষ্মা রোগ সারিয়ে দেওয়ার জন্য বাবা লোকনাথের স্মরণে আসেন। বাবা লোকনাথ বুঝতে পারেন যে তাঁর ছেলের আয়ু প্রায় শেষ।

তবে ভক্তের কল্যাণের জন্য তিনি সেই ভক্তের ছেলের যক্ষ্মা নিজের শরীরে ধারণ করেন। সেই ভক্তের ছেলে ধীরে ধীরে রোগমুক্ত হলেও কিছুদিন পর মারা যায়। এদিকে ধীরে ধীরে যক্ষ্মা গ্রাস করতে থাকে বাবা লোকনাথকে। ১৯শে জ্যৈষ্ঠ তিনি দেহত্যাগের কথা ঘোষণা করেন।

এরপরই বারদী আশ্রমে ভক্তের সমাগম হয় প্রচুর। অবশেষে ১৯শে জ্যৈষ্ঠ বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে মহাসমাধি লাভ করেন বাবা লোকনাথ। এই সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ১৬০ বছর।

আজ ১৯শে জ্যৈষ্ঠ। বাবা লোকনাথের তিরোধান দিবস। বাবা লোকনাথের নানান উপদেশ চিরকাল জগত সংসারকে প্রসিদ্ধ করে এসেছে। তাঁর নানা বাণী সমৃদ্ধ করেছে মানবজীবনকে। আজ তাঁর তিরোধান দিবসে তাঁরই কিছু উপদেশ তুলে ধরা হল।

  • অর্থ উপার্জন করা আর তা রক্ষ করা আর ব্যয় করার সময় বিশ্ব দুঃখ ভোগ করতে হয়, অর্থ সকল অবস্থাতেই মানুষকে কষ্ট দেয়। তাই অর্থ ব্যয় হলে বা চুরি হলে, তা নিয়ে চিন্তা করে কোনও লাভ নেই।
  • সত্যের মতো পবিত্র আর কিছু নেই। স্বর্গ গমনের একমাত্র সোপান হল সত্যি।
  • যাহারা আমার নিকট আসিয়া, আমার আশ্রয় গ্রহণ করে তাহাদের দুঃখে আমার হৃদয় আদ্র হয়। এই আদ্রতাই আমার দয়া ইহাই আমার শক্তি, যা তাদের উপর প্রসারিত হয় এবং তাহাদের দুঃখ দূর হয়।
  • গর্জন করবি কিন্তু আহাম্মক হবি না। ক্রোধ করবি কিন্তু ক্রোধান্ধ হবি না।
  • যে ব্যক্তি সকলের সুহৃদ আর যিনি কায়মনোবাক্যে সকলের কল্যাণ সাধন করেন তিনি যথার্থ জ্ঞানী।
  • আমিও তোদের মতো খাই-দাই-মল-মূত্র ত্যাগ করি। আমাকেও তোদের মতোই একজন ভেবে নিস। আমাকে তোরা শরীর ভেবে ভেবেই মাটি করলি আর আমি যে কে, তা আর কাকে বোঝাব। সবাই তো ছোটো ছোটো চাওয়া নিয়ে ভুলে রয়েছে, জানল না প্রকৃত আমি কে?
  • গীতা কি আর নিত্য পাঠ করাপর জিনিস, গীতা যে গীতা। গীতা পাঠ করলে কী হবে, শোনার চেষ্টা করতে হবে। প্রতিটি জীব হৃদয়ে বসে যে ভগবান নিত্য গীতা শোনাচ্ছেন, যেদিন শুনবি সেদিন গীতা হয়ে যাবি।
  • যে ব্যক্তি কৃতজ্ঞ, ধার্মিক, সত্যচারী, উদারচিত্ত, ভক্তিপরায়ন, জিতেন্দ্রিয়, মর্যাদা রক্ষা করতে জানে আর কখনও আপন সন্তানকে পরিত্যাগ করেন না, এমন ব্যক্তির সঙ্গে বন্ধুত্ব করুন।
  • দীন-দরিদ্র, অসহায় মানুষের হাতে যখন যা দিবি তা আমিই পাব, আমি গ্রহণ করব। দরিদ্রতায় ভরা সমাজের দুঃখ দূর করার চেষ্টা করবি।
  • প্রতিদিন রাতে শোবার আগে সারাদিনের কাজের হিসেব-নিকেশ করবি। অর্থাৎ ভালো কাজ কী কী করেছিস আর খারাপ কাজ কী কী করেছিস। যে সকল কাজ খারাপ বলে বিবেচনা করলি, সে সকল কাজ আর যাতে না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখবি।
  • সূর্য উঠলে যেমন আধার পালিয়ে যায়, গৃহস্থের ঘুম ভেঙে গেলে যেমন চোর পালিয়ে যায়, ঠিক তেমনি বার বার বিচার করলে খারাপ কাজ করার প্রবৃত্তি পালিয়ে যাইবে।
  • আমি শরীর ছেড়ে দিয়েছি। কিন্তু ভক্তের রক্ষা করার জন্য আমি সর্বদা ভক্তের সঙ্গেই রয়েছি। তোদের চোখ নেই, তাই তোরা আমাকে দেখেও দেখিস না।
  • যে কর্ম মনে তাপ সৃষ্টি করে তাই পাপ। যে কর্মের মধ্য দিয়ে আত্মসচেতনতা বা শক্তির ভাব মনকে ভরিয়ে তোলে, তাই পুণ্য এবং স্বর্গ তুল্য।

Related Articles

Back to top button