জ্যোতিষশাস্ত্র

বিয়ের তারিখ ঠিক করার আগে এই জিনিসগুলি অবশ্যই মাথায় রাখুন, জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী স্থির করুন বিয়ের দিন

চলছে বিয়ের মরশুম। একটা বিয়ে সকলের কত ধরণের কত স্বপ্ন থাকে। হাজারো একটা আয়োজনের পর একটা বিয়ে হয়। তবে সবথেকে যেটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, তা হল বিয়ের তারিখ স্থির। সঠিক দিনক্ষণ মেনেই বিয়ে করা উচিত। জ্যোতিষশাস্ত্র বলে, বিয়ের তারিখ বাছাই করতে গেলে কিছু জিনিস খেয়াল করা উচিত।

সেগুলি কী কী, দেখে নেওয়া যাক-

  • বাড়ির বড় সন্তানের বিয়ে যেন জ্যৈষ্ঠ মাসে না করা হয়। কারণ জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুযায়ী, জ্যেষ্ঠের বিয়ে কখনওই জ্যৈষ্ঠ মাসে করা উচিত নয়। এতে বাড়ির অকল্যাণ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
  • পাত্র ও কন্যার মা-বাবার যে মাসে বিয়ে হয়েছিল, সেই মাসে বিয়ে এড়িয়ে চলাই ভালো। জ্যোতিষশাস্ত্রে মতে, মা-বাবার বিয়ের মাসে বিয়ে হলে সেই দাম্পত্য সুখের হয় না। ইংরেজি ও বাংলা দু’টি মাসই গুরুত্বপূর্ণ এ ক্ষেত্রে।
  • গ্রহণের সময় বা দিন অশুভ মনে করা হয়। তাই সূর্য বা চন্দ্রগ্রহণ রয়েছে, এমন সময়ের আশেপাশে বিয়ে ঠিক করা উচিত নয়। এমনকি অষ্টমঙ্গলা বা দ্বিরাগমনও যেন গ্রহণের আশেপাশে না পড়ে, সে দিকে নজর রাখতে হবে।
  • নক্ষত্রের দিকটিও মাথায় রাখা প্রয়োজন। তারিখ ঠিক করার সময়ে লক্ষ্য রাখতে হবে পূর্বা, ফাল্গুনী বা পুষ্যা নক্ষত্র যেন না পড়ে। কারণ জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে, এই নক্ষত্রে বিয়ে হলে বন্ধন অটুট হয় না বলে ধরা হয়। তাই দাম্পত্য সুখ বজায় রাখতে হলে এই নক্ষত্রে একেবারেই বিয়ে স্থির করা উচিত নয়।
  • কথিত রয়েছে, ভাদ্র ও চৈত্র মাসে বিয়ে সম্পর্কিত কোনও কাজে এগিয়ে যাওয়া ভালো নয়। খারাপ ফল হয় এতে। এছাড়াও বিয়ের পাকা কথা বলতে যাওয়ার সময়ে সঙ্গে গণেশ মূর্তি রাখা উচিত নয়। তা শুভ ফল দেয় না।
  • অন্যদিকে, বৃহস্পতি ও শুক্রে দি গোচর থাকে। আর ‘তারা অস্ত’ থাকে। তাই এই লগ্নে বিয়ে দেওয়া নৈব নৈব চ। অবশ্যই তাই তিথি দেখে বিয়ে স্থির করা প্রয়োজন।

Related Articles

Back to top button