সব খবর সবার আগে।

অ্যাসিড হামলার প্রচার টিকটকে, জাতীয় মহিলা কমিশনের হস্তক্ষেপে, বিপাকে ‘বিখ্যাত’ টিকটকার

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

টিকটক না ইউটিউব, এই তর্কে বেশ কয়েকদিন ধরেই সরগরম নেটদুনিয়া। টিকটকারদের রোস্ট করা ইউটিউবারদের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন ‘বিখ্যাত’ টিকটকার আমির সিদ্দিকি। তাকে তখন রোস্ট করে  ইউটিউবে ফাস্টেস্ট ভিউজ এবং লাইকস পায় ইউটিউবার অজয় নাগের ওরফে ক্যারিমিনাটি।  অন্যদিকে আমির সিদ্দিকি, ফৈজল শেখও আওয়াজ তোলেন ইউটিউবেল বিরুদ্ধে। তারপরই ক্যারিমিনাটির ভিডিও ডিলিট হয়ে যাওয়া নিয়ে এখন জল্পনা তুঙ্গে। 

এবার টিকটকার ফৈজল সিদ্দিকির একটি ভিডিও প্রকাশ্যে এসেছে এল যা তাঁকে রীতিমত বিপাকে ফেলেছে। সম্পর্কে আমির সিদ্দিকির দাদা টিকটকার ফৈজল সিদ্দিকির অ্যাটাক নিয়ে একটি ভিডিও বানিয়েছিল যেখানে দেখানো হয়েছে সে একটি মেয়েকে বলছে, যে আমাকে যার জন্য ছেড়ে গিয়েছিলে সে তোমায় ছেড়ে দিয়েছে। এই সংলাপ বলতে বলতেই হাতে থাকা গ্লাস থেকে তরল পদার্থ হঠাৎ একটি মেয়ের দিকে ছুঁড়ে মারে। মেয়েটির মুখ সঙ্গে সঙ্গে পুড়ে যায় (প্রস্থেটিক মেকআপ দেখে তেমনই মনে করছেন নেটিজেনরা)। নেটিজেনদের মতে এই ভিডিও সিম্বলাইজ করছে অ্যাসিড আক্রান্তদের। বিষয়টি অ্যাসিড অ্যাটাককে প্রচার করছে। কোনও মেয়ে তার প্রেমিককে ছেড়ে দিলে সেই প্রেমিকের তার উপর অ্যাসিড হামলা করা উচিত এই ছিল ভিডিওর বার্তা।

ভিডিওটি বিজেপির এমএলএ তজিন্দর পাল সিং বগ্গার চোখে পড়তেই জাতীয় মহিলা কমিশনকে ট্যাগ করে ট্যুইটারে ভিডিও পোস্ট করেছেন। জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপারসন রেখা শর্মারও ভিডিও চোখে পড়ে। তীব্র নিন্দা করে তিনি ট্যুইটে লেখেন, “আমি আজই পুলিশের কাছে এই ভিডিওটি নিয়ে কথা বলব পাশাপাশি টিকটক ইন্ডিয়ার সঙ্গেও বৈঠক করব।” পরে জানা যায়, পুলিশের কাছে ফৈজলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে এবং ফৈজলকে টিকটক থেকে ব্যান করার দাবি জানানো হয়েছে।

ভিডিওর তীব্র নিন্দা ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু অবাক করার বিষয় হল ভিডিওটির সমর্থনে এখনও অনেকে মন্তব্য করে চলেছে, যাদের মধ্যে অধিকাংশই মহিলা। 

Get real time updates directly on you device, subscribe now.