বিনোদন

‘কফি ডেটের উপহার কুকুর হতে পারে নাকি?’ বামপন্থী শ্রীলেখাকে তীব্র কটাক্ষ পশুপ্রেমী দেবশ্রী রায়ের

বর্তমানে অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র রয়েছেন সংবাদ শিরোনামে। তার বিরুদ্ধে উঠেছে গুরুতর অভিযোগ। কফি ডেটের নাম করে একজন দায়িত্বজ্ঞানহীন রেড ভলেন্টিয়ারকে একটি কুকুর ছানা দত্তক নেওয়া করিয়েছিলেন শ্রীলেখা,সেই কুকুরটি মারা গিয়েছে। আর তারপরে ঘটনা প্রবাহ বয়েই চলেছে। এই নিয়ে এবার মুখ খুললেন দেবশ্রী রায় যিনি নিজে সারমেয়দের দেখভালে যুক্ত দীর্ঘ দুই দশক ধরে।

গতকালই গিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ডগ ডে। এদিন নিজেদের পোষ্যর সঙ্গে ছবি দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই দিনটি পালন করেছেন বিশ্বের সকল পশুপ্রেমীরা। সঙ্গে পথপশুদের জন্য সকলকে সহানুভূতিশীল হওয়ার আবেদন করেছেন তাঁরা। কিন্তু এদিন সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে ছিলেন শ্রীলেখা মিত্র এবং ভলেন্টিয়ার্স শশাঙ্ক। কীভাবে মারা গেল পোষ্য? তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

এবার সেই তালিকায় নাম জুরল অভিনেত্রী দেবশ্রী রায়ের। জানালেন, উপহার কখনোই কুকুরের বাচ্চা হতে পারেনা। অভিনেত্রী নিজেই প্রায় ২০ বছর ধরে কাজ করেছেন সারমেয়দের নিয়ে। সংবাদমাধ্যমের কাছে তিনি জানালেন, ‘পশুদের দত্তক নেওয়ার একটা নিয়ম রয়েছে। হুট করে কফি খাওয়ার নাম করে কেউ পশু দত্তক নিতে পারে না আসলে। পশু প্রেমীরা খুবই আবেগপ্রবণ হয়। সন্তানঃ হিসেবে দেখে পশুদেরকে‌। ফলত যদি কোনো বাচ্চা এই ভাবে মারা যায় খুবই ইমোশনাল হয়ে পরি আমরা। হয়তো এই মহিলাও রিয়্যাক্ট করে ফেলেছেন’।

অভিনেত্রী কথায়, ‘দেখতে গেলে একটা কফি‌ডেটের উপহার কখনোই বাচ্চা কুকুর হতে পারেনা। একটি বাচ্চাকে সেই মানুষটি নিয়ে যাচ্ছে যখন, তখন দায়িত্বের প্রশ্ন আসে সেখানে। আমাদের মানুষ হিসেবে আরও সচেতন হওয়া উচিত’। শ্রীলেখা সম্পর্কে অভিনেত্রীর এরূপ মন্তব্য সাড়া ফেলে দিয়েছে নেটপাড়ায়।

এই বিষয় নিয়ে যদিওবা শ্রীলেখা মিত্র বারবারই ক্ষমা চেয়েছেন। জানিয়েছেন, আবেগের বশে আর কারোর সাথে এরকম ছোট একটি শিশুকে ছেড়ে দেবেন না। সঙ্গে তিনি বলেন, রেড ভলেন্টিয়ার শশাঙ্কর ওপর রাগ হয়েছে, কিন্তু তাঁকে কখনোই গুন্ডা দিয়ে মেরে ফেলার ধারণা মাথাতেও আনি নি। এই মুহূর্তে নিজের ছবির কাজে বাইরে রয়েছেন তিনি। কিন্তু এদিন সারমেয়র মৃত্যুর খবর পেয়ে, সেই ঘোরা বাতিল করে দেন।

এদিকে অভিনেত্রী যতই ক্ষমা চান না কেন, তাঁর সমালোচনা জারি রয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। উত্তরে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ‘কে কী ভাবলো তাতে কিছুই যায় আসে না। বিধানসভা ভোটের আগে যখন সকলে তৃণমূল-বিজেপি করছিল, তখন এই শ্রীলেখা মিত্রই বামেদের হয়ে প্রচার করেছে। তাই নিজেকে ছাড়া অন্য কাউকে কৈফিয়ত দেব না’। অভিনেত্রীর সাফ জবাব , বারবার একই ভুল আওড়াবেন না তিনি।

Related Articles

Back to top button