সব খবর সবার আগে।

আগামীকাল থেকে রাজ্যে পূর্ণ লকডাউন, পরোক্ষভাবে মমতা সরকারকে বিঁধলেন অভিনেতা অঙ্কুশ হাজরা

অঙ্কুশ হাজরার সঙ্গে বাংলার দর্শকরা বেশ ভালোভাবেই পরিচিত। মাঝেমধ্যেই নানান মন্তব্য করে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কের কেন্দ্রে আসেন তিনি। এবার লকডাউন নিয়ে রাজ্য সরকারকে পরোক্ষভাবে ঠুকে কথা বললেন অভিনেতা।

আগামীকাল থেকে রাজ্যে জারি পূর্ণ লকডাউন। বন্ধ শপিং মল, রেস্তোরাঁ, জিম, ক্যাফে, স্কুল-কলেজ, ট্রেন-বাস-মেট্রো। সময় কমিয়ে দেওয়া হয়েছে বাজার-দোকান ও মুদিখানার। রাজ্যে করোনা সংক্রমণের হার যেভাবে বাড়ছে, সেই কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া য়েছে রাজ্য সরকারের তরফে।

তবে এই সিদ্ধান্তকে ‘লকডাউন’ বলতে নারাজ রাজ্য। বলা হয়েছে, করোনা বিধিনিষেধে কড়াকড়ি। এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরই নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট দেন অভিনেতা অঙ্কুশ হাজরা। পোস্টে লেখা, “চোর পালালে বুদ্ধি বাড়ে”। এই কথার মধ্যে দিয়ে যে অভিনেতা পরোক্ষভাবে মমতা সরকারকে বিঁধেছেন, তা বেশ স্পষ্ট।

আরও পড়ুন- একদিকে ভারতে বৃদ্ধি পেল দুই টিকার মধ্যে ব্যবধান, অন্যদিকে ব্রিটেনে কমল ব্যবধান

আসলে রাজ্যে করোনার গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী গত মাসের প্রথম দিক থেকেই। কিন্তু সেই সময় রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের কারণে রাজ্যের নেতারা ও কেন্দ্রীয় নেতারা প্রতিদিন রাজনৈতিক সমাবেশ করেছেন। সেখানে মানা হয়নি করোনার দুরত্ববিধি। এর জেরে সংক্রমণ ছড়িয়েছে ভয়ানক গতিতে।

এই কারণে এই লকডাউন অনেক আগেই করা উচিত ছিল বলেই মনে করছেন অনেকে। আর অভিনেতারও তাই মত। বর্তমানে সংক্রমণ যেভাবে ছড়িয়ে পড়েছে, সেদিক থেকে এই লকডাউন আদৌ কতটা ফলপ্রসূ হবে, এ নিয়েও যথেষ্ট সংশয় রয়েছে সকলের। তাছাড়া, ইদ কেটে যাওয়ার ঠিক পরদিনই এই লকডাউন ঘোষণা নিয়েও অনেকে কটাক্ষ করেছেন মমতা সরকারকে। অভিনেতা অঙ্কুশ হাজরাও পরোক্ষভাবে তাই-ই বলতে চেয়েছেন যে, যখন লকডাউনের সবচেয়ে বেশি দরকার ছিল, যখন সংক্রমণের গ্রাফ বাড়তে শুরু করেছিল, তখনই লকডাউন ঘোষণা করা উচিত ছিল সরকারের। এখন সংক্রমণ এত বাড়াবাড়ি পর্যায়ে পৌঁছনোর পর লকডাউন ঘোষণা কতটা প্রাসঙ্গিক, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

You might also like
Comments
Loading...