বিনোদন

সায়ন্তর সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙা নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন দেবচন্দ্রিমা, কেন ভাঙল তাদের সম্পর্ক? কী বললেন অভিনেত্রী?

টলিপাড়ায় ফের সম্পর্কে ফাটল। দীর্ঘ চার বছরের সম্পর্কের অবসান। ব্রেকআপ হল ‘সাঁঝবাতি’ ধারাবাহিক খ্যাত অভিনেত্রী দেবচন্দ্রিমা সিং রায় ও তাঁর প্রেমিক অভিনেতা সায়ন্ত মোদকের। কিন্তু কেন সম্পর্কে এই ছেদ? মুখ খুললেন অভিনেত্রী।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছিল তাদের নিত্য আনাগোনা। সায়ন্তর ইউটিউব চ্যানেলেও দেবচন্দ্রিমাকে নিয়মিত দেখা যেত। একইসঙ্গে থাকতেন তারা। কিন্তু আজ একে অপরের থেকে আলাদা এই দু’জন। ব্রেকআপ নিয়ে গুঞ্জন শুরু হতে এই প্রসঙ্গে দেবচন্দ্রিমা স্পষ্ট জানান যে তাদের মধ্যে এখন কোনও সম্পর্ক নেই। তিনি একেবারেই সিঙ্গেল।

কিন্তু কেন এমন সিদ্ধান্ত? সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে দেবচন্দ্রিমা জানান যে তিনি যখন সায়ন্তর সঙ্গে সম্পর্ক শুরু করেছিলেন, তখন তিনি কাউকে বিস্তারিত জানান নি যে সায়ন্তর মধ্যে কী কী ভালো গুণ দেখে তিনি তাঁর সঙ্গে সম্পর্কে গেলেন। তাই আজ যখন তাদের সম্পর্ক শেষ হয়ে গিয়েছে, তখনও তিনি কাউকে জবাবদিহি করতে রাজী নন যে তাঁর মধ্যে কী এমন খারাপ দেখলেন যে ব্রেক আপ হল।

অভিনেত্রী জানান যে কোনও একটা খারাপ লাগার দিক থেকেই এই সম্পর্কটা ভেঙেছে। আর সম্পর্ক ভাঙার সিদ্ধান্ত তিনিই নিয়েছেন, তাই তিনি কাউকে কোনও জবাব দিতে চান না কারণ এটা নেহাতই তাদের দুজনের ব্যক্তিগত ব্যাপার।

এমন গুঞ্জনও রটে যে ‘সাঁঝবাতি’ ধারাবাহিকে কোনও এক সহ-অভিনেতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার জেরেই নাকি সায়ন্তর সঙ্গে সম্পর্কে ছেদ পড়েছে দেবচন্দ্রিমার। কিন্তু অভিনেত্রী পরিস্কার জানান যে একথা সম্পূর্ণ মিথ্যে। এমন কোনও ঘটনা ঘটেনি।

অভিনেত্রী জানান যে সায়ন্তর সঙ্গে তাঁর প্রচুর ভালো ভালো স্মৃতি রয়েছে। তাই সম্পর্কটা খারাপভাবে শেষ করতে চান নি তিনি। সম্পর্কে আরও বেশি খারাপ জিনিস ঢুকলে, তিক্ততা আরও বাড়বে। তাই এভাবে সম্পর্কটা টেনে নিয়ে গিয়ে দুজনের মধ্যে একে অপরের জন্য তিক্ততা বাড়ানোর থেকে আগেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসা ভালো। এতে পরবর্তীকালে ভালো মুহূর্তগুলো মনে করে ভালো থাকা যাবে।

কোনওভাবেই কী তাদের মধ্যেকার সম্পর্ক ঠিক হওয়ার নয়? এর উত্তরে দেবচন্দ্রিমা বলেন, সবটাই সময়ের উপর নির্ভর করছে। একটা সম্পর্ক খারাপ হয়েছে, হঠাৎ করে সব ঠিক করে আবার একসঙ্গে পথচলা সম্ভব নয়। তভে ভবিষ্যতে আদৌ কী হবে, তা সময়ই বলবে। অভিনেত্রীর এই কথা থেকে অন্তত এটুকু আন্দাজ করা যায় যে ভবিষ্যতে যদি এই জুটির মধ্যেকার মনোমালিন্য ঠিক হয়, তাহলে ফের দুজনে একসঙ্গে ফিরলেও ফিরতে পারেন।

Related Articles

Back to top button