বিনোদন

শুধুমাত্র বনগাঁর বাঙালি বলে ট্রফি পেলেন না অরুণিতা! নেট দুনিয়ায় তীব্র প্রতিবাদ বাঙালি দর্শকদের

শেষ হয়েছে বহু বিতর্কিত ইন্ডিয়ান আইডল। ট্রফি পেয়েছেন উত্তরাখন্ডের পবনদীপ। সেকেন্ড হয়েছেন বনগাঁর অরুণিতা। আর তাতেই ক্ষিপ্ত হয়েছেন বাঙালি দর্শকরা।

গতকাল ছিল ইন্ডিয়ান আইডলের গ্র্যান্ড ফিনালে। স্বাধীনতা দিবস পালনের সঙ্গেই শেষ হল ইন্ডিয়ান আইডলের যাত্রা। শেষমেষ ঘোষিত হল বিজয়ীর নাম। জানা গেল বিজয়ী হয়েছেন পবনদীপ। এদিকে পুরো সিজন জুড়ে বিচারকদের প্রশংসা আর অনুরাগীদের ভালোবাসা দেখে সবাই ধরেই নিয়েছিল বিজয়ী হবেন অরুণিতা কাঞ্জিলাল। কিন্তু সকলকেই অবাক করে দিয়ে বিজয়ী হয়েছেন পবনদীপ। এমনিতেই পবনদীপের সঙ্গে অরুণিতার সম্পর্ক বারবারই সকলের চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছে। ফের আবার পবনদীপের শো জেতা চর্চায় তুলেছে তাঁদের।

ইন্ডিয়ান আইডলে প্রথমে ফাইনালিস্ট হওয়ার কথা ছিল পাঁচ জনের সেখানে জায়গা দেওয়া হয় ছয়জনকে তার মধ্যে ছিল পবনদীপ রাজন, অরুণিতা কাঞ্জিলাল, সায়নী কাম্বলে, মহম্মদ দানিশ, নিহাল তাউরা ও সম্মুখপ্রিয়া। সকলেই ভেবেছিলেন ট্রফি পাবে বাংলার মেয়ে অরুণিতা কাঞ্জিলাল। কিন্তু সেখানে দ্বিতীয় স্থান পেল অরুণিতা, তৃতীয় স্থানে সায়নী কাম্বলে, চতুর্থ মহম্মদ দানিশ এবং পঞ্চম ও ষষ্ঠ স্থানে নিহাল তাউরা ও সম্মুখপ্রিয়া।

যাদের মনে হয়েছিল একচোখামি হচ্ছে ইন্ডিয়ান আইডল ট্রফির পাশাপাশি ২৫ লক্ষ টাকা এবং একটি বিলাসবহুল গাড়ি। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে প্রতিযোগিতায় দেওয়া হয়েছে ৫ লক্ষ টাকা নগদ এবং নগদ তিন লক্ষ টাকা। বারো ঘন্টা ধরে চলল ইন্ডিয়ান আইডলের গ্র্যান্ড ফিনালে।

এই গ্র্যান্ড ফিনালে বিশিষ্ট অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমার শানু, আলকা ইয়াগ্নিক, উদিত নারায়ন থেকে শুরু করে হিমেশ রেশমিয়া, আনু মাল্লিক, সনু কাক্কার, সিদ্ধার্থ মালহোত্রা, কিয়ারা আদভানি সহ বিশেষ অতিথিরা। শো’তে নিজেদের ছবি ‘শেরশাহ’র জন্য উপস্থিত হয়েছিলেন সিদ্ধার্থ মালহোত্রা ও কিয়ারা আদভানি।

ইতিমধ্যেই ক্যাপ্টেন বিক্রম বাত্রার চরিত্র ভালোভাবে ফুটিয়ে তোলার জন্য প্রশংসা পাচ্ছেন সিদ্ধার্থ মালহোত্রা। সঙ্গে জনপ্রিয়তা পাচ্ছেন কিয়ারা আদভানিও। এদিন এই বিশেষ তারকাদের উপস্থিতি শো’কে এক আলাদা মাত্রা দিয়েছিল।

Related Articles

Back to top button