সব খবর সবার আগে।

চীনা সংস্থা Helo স্পনসর, তাই সেরা অভিনেতার পুরস্কার নিলেন না জিৎ

এবার ভারত চীন বিবাদের জের এসে পড়ল টলিউডেও। একদিকে তৃণমূলের সাংসদ অভিনেত্রী চীনা অ্যাপ টিকটক বাতিল করে দেওয়ার দুঃখে মর্মাহত অন্যদিকে টলিউডের এক তারকা অভিনেতা চীনা সংস্থা Helo-র স্পনসর করা একটি পুরস্কার নেবেন না বলে ঘোষণা করলেন!

চীনের সঙ্গে ভারতের যে সংঘর্ষ লাদাখ উপত্যকায় চলছে সেই কথাকে মাথায় রেখে এবার চীনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালেন জিৎ। তবে কোন গালভরা পোস্ট দিয়ে নয়, চীনা সংস্থার দেওয়া পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করে।

চীনা সংস্থা Helo একটি ভার্চুয়াল পুরস্কারের আয়োজন করেছিল সেখানে সেরা অভিনেতা নির্বাচিত হয়েছেন জিৎ। পুরস্কার প্রত্যাখান করে অভিনেতা সাফ জানিয়েছেন যে, “সীমান্তে গিয়ে লড়তে না পারলেও নিজের দেশের জন্য এটুকু তো করাই যায়!”

তৃণমূল সাংসদ অভিনেত্রী নুসরত জাহান যেমন টিকটককে ভারতে নিষিদ্ধ করা নিয়ে তাঁর ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন। সেই সুরে সুর মিলিয়ে তৃণমূলের যুব শক্তির রাজ্য কো-অর্ডিনেটর অভিনেতা সোহম চক্রবর্তীও বলেছিলেন যে, “অ্যাপ বন্ধ করলে তো আর শহীদরা ফিরে আসবেন না।” সেখানে স্রোতের উল্টো পথে হেঁটে Helo-র পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করলেন টলিউড সুপারস্টার। যদিও তিনি সংস্থার নামোল্লেখ করেননি।

দিনকয়েক আগে Helo চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদানের জন্য ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। সেখানেই দর্শকের বিচারে সেরা অভিনেতার শিরোপা জিতেছিলেন জিৎ। সম্প্রতি লাদাখে ইন্দো-চীন সংঘর্ষে শহীদ হয়েছেন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। চীনের এই নৃশংস ব্যবহারের কথা কোনভাবেই মেনে নিতে পারেননি জিৎ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, যে সমস্ত দর্শকরা তাঁর হয়ে ভোট দিয়েছেন তাঁদেরকে অসংখ্য ধন্যবাদ। পুরস্কার পেতে সবারই ভালো লাগে। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না এই পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের সঙ্গে একটি চীনা কোম্পানি জড়িত। কিন্তু বর্তমানে ভারতের সঙ্গে চীনের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ভালো নয় এবং চীনের আগ্রাসী মনোভাবের জন্যই আমাদের দেশের কুড়ি জন জওয়ান শহীদ হয়েছেন। তাই তিনি এই পুরস্কার নিতে অপারগ। সীমান্তে গিয়ে লড়াই না করলেও এটুকু তিনি নিজের দেশের জন্যে করতেই পারেন।

You might also like
Leave a Comment