বিনোদন

কোটিপতি হওয়া তো দূর, ফুটপাত থেকে কিনে পরতেন জামাকাপড়, আজ তিনিই টলিউডের এক নম্বর হিরো ফ্যাশানিস্তা জিৎ

টলিপাড়ায় জিৎ মানেই ধুমধাড়াক্কার অ্যাকশন ফিল্ম। এর সঙ্গে প্রেমের গল্প তো রয়েইছে। বাঙালি দর্শকের মধ্যে জিৎকে নিয়ে উন্মাদনা কম নেই। বাংলায় প্রচুর ফ্যান অভিনেতার। আর তার প্রমাণ মেলে যখন জিতের কোনও ছবি মুক্তি পায়। আজ সেই অভিনেতারই ৪৩তম জন্মদিন।

জিৎ টলিউডে তাঁর যাত্রা শুরু করেন ‘সাথী’ ছবি দিয়ে। প্রথম ছবিতেই বাজিমাত। দারুণ সাফল্য পেয়েছিল ছবিটি। এরপর তাঁকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর এক সুপারহিট ছবি দিয়ে জীবনে সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছেছেন জিৎ। আর এখন তো তিনি শুধুমাত্র অভিনেতা জিৎই নন, প্রযোজকও বটে।

আজকের এই সুপারস্টার জিৎ-এর জীবন কিন্তু বরাবর এমন ছিল না। একসময় টাকার অভাবে ফুটপাত থেকে জামা কিনে পরেছেন তিনি। তখন তাঁর বয়স ১৬ কী ১৭। সেই সময় সবেমাত্র হিরো হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন তিনি। ছবিতে চান্স পান নি তখনও। এক সাক্ষাৎকারে সেই সময়কার এক ঘটনার কথা বলেছিলেন জিৎ।

তিনি বলেন যে একবার একটা জন্মদিনের পার্টির নেমন্তন্নে যাওয়ার জন্য নিউ মার্কেটে ড্রেস কিনতে গিয়েছিলেন তিনি। সেই পোশাক পরে পার্টিতেও গিয়েছিলেন। কিন্তু পরের দিন হঠাৎই তার মনে পড়ে যায় আবার একটা পার্টি রয়েছে। কিন্তু ওয়ার্ড্রোবে পরার মতো তেমন ভালো কোনও পোশাক আর নেই।

তাই তখনই তিনি সোজা চলে যান নিউ মার্কেটের সেই দোকানেই। সেখানে গিয়ে তিনি বলেন যে পোশাকটা তিনি কিনে নিয়ে গিয়েছিলেন, সেটা পছন্দ হয়নি। আর সেই পোশাকটাই পাল্টে অন্য পোশাক কেনেন জিৎ।

এপ্রসঙ্গে হাসতে হাসতে জিৎ বলেছিলেন, “পোশাক পাল্টে অন্য একটা নিলাম। সেটা পরেই গেলাম পার্টিতে। তখন পয়সা কোথায় যে রোজ রোজ নতুন পোশাক পরে যাব! অগত্যা”। তবে এখন তিনি টলিউডের সফল নায়ক। নানান নামীদামী ব্র্যান্ডের পোশাক এখন তাঁর ওয়ার্ড্রোবে শোভা পায়। তবে এই পথ তৈরি করা মোটেই যে মসৃণ ছিল না, তাও নিজের মুখেই জানান অভিনেতা।

Related Articles

Back to top button