সব খবর সবার আগে।

ফের সানাইয়ের সুর টলি পাড়ায়, দীর্ঘ দশ বছরের সম্পর্ককে পরিণতি দিতে চলেছেন নীল-তৃণা

এখন যেন টলিপাড়ায় কান পাতলেই সানাইয়ের সুর ও বিয়ের গন্ধ পাওয়া যায়। গতকালই প্রকাশ্যে এসেছে অনির্বাণ ভট্টাচার্যের বিয়ের খবর। যদিও এই খবর পাওয়ার পর আনন্দের চেয়ে বিষাদের সুরই বেজেছে বেশী। কতো কতো মহিলা ভক্তের যে মন ভেঙেছে এই খবর শুনে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এরই মধ্যে ফের অন্য এক হিট জুটির বিয়ের খবরও শোনা গেল। বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য ও অভিনেত্রী-মডেল তৃণা সাহা।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে নিজেদের বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আনেন নীল ও তৃণা। আগামী ৪ঠা ফেব্রুয়ারি একটি আলিশান ক্লাবে বসবে তাদের বিয়ের আসর। এরপর ভ্যালেন্টাইন্স ডে অর্থাৎ ১৪ই ফেব্রুয়ারি টলিউডের বন্ধুদের জন্য থাকছে জমজমাট রিসেপশন পার্টি। তবে বিয়েতে একেবারে সাবেকি বাঙালি বউয়ের মতোই সেজে উঠবেন তৃণা, এও নিজের মুখেই প্রকাশ করলেন।
দীর্ঘ ১০ বছরের সম্পর্ক তাদের। প্রথমবার তাদের দেখা হয় এমবিএ-র প্রবেশিকা পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার একটি ক্লাসে। প্রথম দেখাতেই নীল তৃণার প্রেমে পড়লেও, তৃণা তাকে ততটা আমল দেন নি। কিন্তু ধীরে ধীরে দুটি মন ঠিকই কাছে এল। তারপরে অনেক চড়াই উতরাই পেরিয়ে অবশেষে নীল-তৃণা বিয়ে করছেন।

কলকাতায় দু’জনেই নিজেদের অভিনয় জীবন শুরু করেন। তৃণার কথায়, “‘২০১৫ সালে আমরা ফের একে অপরের কাছাকাছি আসি। এরপর ২০১৬ সালের ৮ই জুন ওঁর (নীল) জন্মদিনের দিন আমি বুঝেছিলাম ওকে ছাড়া আমি থাকতে পারব না। তাই সোজাসুজি আই লাভ ইউ বলে দিলাম। তবে নীল কিন্তু হ্যাঁ, বলেনি’।

এরপর কেটে যায় বেশ কয়েকটা মাস। শেষে তৃণার জন্মদিন অর্থাৎ ২১শে জানুয়ারি ২০১৭-এ নীল সকলের সামনে তৃণাকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। তবে ভালোবাসার কথা জানাতে নীল এতদিন সময় নিলেও, নীলের প্রস্তাবে সম্মতি জানাতে কিন্তু তৃণা এক মুহূর্তও সময় নেননি। নীলের মা-বাবাও তৃণাকে সহজেই মেনে নেন, কারণ তাঁরা আগে থেকেই তৃণাকে পছন্দ করতেন।

কিন্তু হঠাৎ এই বিয়ের সিদ্ধান্ত কেন নিলেন তারা? এর উত্তরে হবু দম্পতি বলেন আর একে অপরকে ছেড়ে থাকতে পারছেন না তারা। আর একসঙ্গে থাকতে গেলে বিয়েটা জরুরী। এই প্রসঙ্গে নীল জানান, “এক রবিবার সকালে ভিডিয়ো করে ওকে জিজ্ঞাসা করলাম চল ২০২১-এর ফেব্রুয়ারিতে বিয়েটা করে ফেলি। এরপর দুজনের বাবা-মায়ের সঙ্গে আলোচনা করে ফেব্রুয়ারির ৪ তারিখই বিয়ের দিন ঠিক হল’। বিয়ের পর হানিমুনের পরিকল্পনাও সেরে ফেলেছেন নীল ও তৃণা। হানিমুনে নিজেদের স্বপ্নের জায়গা গ্রীসেই যাবেন তারা। মিয়া-বিবি বিয়ের জন্য একেবারে প্রস্তুত। এখন শুধু চারহাত এক হওয়ার অপেক্ষা।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...