বিনোদন

আত্মসম্মানের লড়াই পিলুর! তবে কী এবার গান শেখার স্বপ্ন বিসর্জন দিয়ে ওস্তাদজিকে বিদায় জানাবে পিলু?

দু’সপ্তাহ আগেই জি বাংলায় শুরু হয়েছে নতুন ধারাবাহিক ‘পিলু’। গানের প্রেক্ষাপট নিয়ে তৈরি এই ধারাবাহিক শুরু থেকেই দর্শকের মন জয় করে নিয়েছে। গ্রামের এক পিলু। খুব সুন্দর লোকগীতি গায় সে। তাঁর স্বপ্ন সে লোকগীতিকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরবে।

এইভাবেই একদিন গান করতে করতে সে এসে পড়ে বিশিষ্ট শাস্ত্রীয় সঙ্গীতশিল্পী আদিত্য নারায়ণের বাড়িতে। পিলুর গান শুনে মুগ্ধ হন আদিত্য নারায়ণ। তিনি নিজের সবথেকে প্রিয় ছাত্র আহিরের উপর দায়িত্ব দেন পিলুকে গান শেখানোর।

ধারাবাহিকে বর্তমানে দেখা যাচ্ছে, আদিত্য নারায়ণের কথামতো পিলুকে তালিম দেওয়ার দায়িত্ব নিয়েছে আহির। পিলু এসে উঠেছে সেই গানবাড়িতেই। একটু একটু করে সকলের মন জয় করলেও আহির কিন্তু তাঁর প্রতি বেশ গম্ভীর। এরই মধ্যে সামনে এল পিলু ধারাবাহিকের নতুন প্রোমো যা দেখে দর্শকমহলে বেশ হইচই পড়ে গিয়েছে।

এই প্রোমোতে দেখা যাচ্ছে, আদিত্য নারায়ণের মেয়ে রঞ্জিনী পিলুর কাছ থেকে একটি হার চাইছে যেটি কী না তাঁর বাবা তাঁকে দিয়েছে। কিন্তু হারের বাক্স খুলেই হতভম্ব পিলু। হার তো সেখানে নেই। কে চুরি করল এই হার? এরই মধ্যে আদিত্য নারায়ণের স্ত্রী অঞ্জনা বসু পিলুকে জিজ্ঞেস করেন যে সে হারটা কোথায় লুকিয়ে? এমন সময় আহির সেই হার নিয়ে এসে পিলুকে অসম্মান হওয়া থেকে বাঁচায়।

কে চুরি করল এই হার? পিলুকে অপদস্ত করার জন্যই কী এই ঘটনা? তা তো পরে জানা যাবে। কিন্তু প্রোমোর চমকের এখানেই শেষ নয়। হারের খোঁজ পাওয়া গেলেও পিলু বলে ওঠে যে তাঁর মা তাঁকে সবসময় শিখিয়েছে অপমান না সহ্য করতে। তাই এরপরও সেই বাড়িতে থাকলে, তাঁর মায়ের অপমান হবে। এই বলে ওস্তাদজিকে প্রণাম করে সেই বাড়ি ছাড়তে উদ্যত হয় পিলু।

তাহলে পিলুর গানের যাত্রার ইতি কী এখানেই। আত্মসম্মান বাঁচাতে সত্যিই কী পিলু সেই বাড়ি ছেড়ে চলে যাবে নাকি আহির সসম্মানে পিলুকে ফের সেই বাড়িতে ফিরিয়ে এনে গানের জগতে প্রতিষ্ঠিত করবে! তা জানার জন্য চোখ রাখতে হবে জি বাংলার পর্দায়।

Related Articles

Back to top button