বিনোদন

‘সুপুরুষদের সঙ্গে একান্তে ডেটে যেতে শ্রীলেখা মিত্র’র কখনও কুকুরকে ‘হাতিয়ার’ করতে হয় না!’ কটাক্ষের মুখে পাল্টা জবাব দিলেন শ্রীলেখা মিত্র!

তিনি যে কতটা পশুপ্রেমী, তা কারোরই অজানা নয়। তাঁর বাড়িতেই রয়েছে পোষ্য। এমনিতেই পথপশুদের জন্য তাঁর হৃদয় কেঁদে ওঠে। অনাথ সারমেয়শিশুদের জন্য এবার আশ্রয়দাতার খোঁজ করছেন টলিউডের জনপ্রিয় ও পরিচিত অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। বিতর্কের সঙ্গে তার বরাবরের সম্পর্ক। এমনিতেই নিজের ঠোঁটকাটা স্বভাবের জন্য সংবাদপত্রের শিরোনামে থাকেন অভিনেত্রী। এবার জোড়হাতে নিবেদন করলেন, ‘কোন কফি ডেটের বিনিময়ে নয়, ভালোবেসে অনাথ সারমেয়দের আশ্রয় দিন।’

এই সবেমাত্র বিদেশ থেকে ফিরেছেন অভিনেত্রী। ভেনিসে গিয়েছিলেন ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে অংশ নিতে। এবার নিজের অতীতে করা ভুল শুধরাতে চান তিনি। সম্প্রতি শশাঙ্ক ভাভসার সঙ্গে কফি ডেট এবং পশুর মৃত্যু নিয়ে তাঁকে নানা কথা শুনতে হয়েছে নেটিজেনদের তরফ থেকে। তার যোগ্য জবাবও দিয়েছেন অভিনেত্রী। এবার এক নতুন বার্তা দিতে দেখা গেল তাঁকে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সংবাদমাধ্যমকে এদিন জানালেন, “একটি শিশুকে হারিয়েছি। মুখোশধারী মানুষকে চিনেছি। একান্তে দেখা করার জন্য কুকুরদের হাতিয়ার বানিয়েছি, এমন বদনামের ভাগীদারও হয়েছি। এত সহজে সবকিছু ভুলি কী করে?”

লকডাউন আর করোনার জেরে অনুরাগীদের সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়াকে। তার জেরেই নানা বিতর্কে জড়িয়েছে অভিনেত্রীর নাম। এবার নিজের মাথা থেকে বদনামের কলঙ্ক হঠাতে চান তিনি। তাই নির্দ্বিধায় জানালেন, “ইউরোপে গিয়ে দুজন সুপুরুষের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎ করে এলাম। তার জন্য শ্রীলেখা মিত্রকে শেষে কুকুরদের হাতিয়ার বানাতে হবে! আমি যা করেছিলাম সেটা পথপশুদের ভালো চেয়ে করেছিলাম। এই ভাবনা আমাকে বিদ্ধ করবে, ভেবে উঠতে পারিনি।”

এদিন অভিনেত্রীর কথায় বোঝা গেল, পথপশুর মারা যাওয়াতে তিনি বেশ আঘাত পেয়েছেন। সঙ্গে অভিমানও হয়েছে। ২১ বছর পর ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে আদিত্য বিক্রম সেনগুপ্তর ‘ওয়ানস আপন আ টাইম ইন কলকাতা’ ছবির হাত ধরে আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন শ্রীলেখা মিত্র। ১৪ দিন সুইৎজারল্যান্ড-সহ ইউরোপের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়িয়েছেন তিনি। সেখানে যে সম্মান পেয়েছেন, তা নিজের শহর তাঁকে দেয়নি বলে জানালেন অভিনেত্রী।

উদাহরণ হিসেবে বলেছেন, চলচ্চিত্র উৎসবের প্রিমিয়ারে ব্লেক নেলসন, এডুয়ার্ডো স্কাপের্টার, নেপোলিটান ওয়ার্ল্ডে, টনি সর্ভিলোর মতো আন্তর্জাতিক তারকার সঙ্গে দাঁড়িয়ে ছবি তুলেছি। যেখানে অভিনেত্রীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ অনুপমা চোপড়ার মতো সমালোচক। সেখানে তাঁকে কিছুই দেয়নি এই শহর। এই কারণেই তিনি মানুষের থেকে, সভ্য সমাজের থেকে দূরে থাকেন। বরং ভালোবাসেন পশুদের।

এদিন অনাথ পথপশুদের আশ্রয়দান খোঁজ করতে গিয়ে ফের কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছে অভিনেত্রীকে। জানালেন, “পশুটি গোল্ডেন রিট্রিভার। তাই আমি যেখানে থাকি সেরকম বহুতলের সভ্য সমাজের মানুষদের অসুবিধা হবেনা আশা করা যায়।” এমনকী দেবশ্রী রায়ের থেকে কটাক্ষ শুনতে হয়েছে তাঁকে। পাশাপাশি এদিন বললেন, ‘রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই এই ঘটনার সঙ্গে।’ তাঁর দাবি, ঘরের খেয়ে তিনি বনের মোষ তাড়াবেন না। যেভাবে পারবেন সারমেয়দের পাশে থাকার চেষ্টা করবেন। তাতে তাঁকে কথা শুনতে হলে কোনো ক্ষতি নেই।

Related Articles

Back to top button