বিনোদন

সিঁথি ভর্তি সিঁদুর, আলতা শাখা পলা পরে স্বামী যশের সঙ্গে দুর্গাপুজোয় জমিয়ে আনন্দ করলেন নুসরাত ছোট্ট ছেলেকে ফেলে রেখে! ‘মুসলিম হয়ে দুধের শিশুকে ফেলে রেখে এত ঢং করো কী করে?’, তাজ্জব নেটিজেনরা

দেখতে দেখতে চলে গেল দুর্গাপুজো। আবার ৩৮০ দিনের অপেক্ষা, আসবে মা। এই বছরে চুটিয়ে আনন্দ করেছে বাঙালি। সেলিব্রেটিরাও বাকি নেই। তবে একটু আলাদাভাবেই দুর্গাপূজা উদযাপন করেছেন যশ‌-নুসরাত।

মূলত দুজনকে কখনো আলাদা দেখা যায় না। দুজনের বোধহয় কোন বন্ধু-বান্ধবও নেই ইন্ডাস্ট্রিতে। নবমীর দিন নিজের কসবার ফ্ল্যাটে মিমি চক্রবর্তী ডিনার পার্টির আয়োজন করেছিলেন সেখানে টলিউডের বড় বড় মুখেরা হাজির থাকলেও ছিলেন না যশ নুসরাত। সেই নিয়ে অনেক জল্পনা হয়েছে। এবারে পুজোটা যশ আর নুসরাত কাটিয়েছেন বাওয়ালি রাজবাড়ীতে।

সেখান থেকেই করেছেন ফটোশুট। তাই পুজোটা আগেও সেলিব্রেট করেছেন নাকি ফটোশুট করে উপার্জন করেছেন সেটা বোঝার উপায় নেই। কোথাও ছেলেকে দেখতে পাওয়া যায় না। এক বছরের একরত্তিকে কোথায় রেখে আসেন কেউ জানে না। কিছুদিন আগেই দুজনে গেছিলেন বিদেশে ঘুরতে, সেখানেও ছেলেকে নিয়ে যাননি। অনেকেই নুসরাতকে একটুও পছন্দ করেন না এই কারণে যে মা হয়েছে অথচ ছেলের ব্যাপারে কোন খেয়াল নেই। ছোট্ট শিশুকে কী করে কলকাতায় রেখে বাইরে আনন্দ করতে পারে বাবা মা সেটা সাধারণ বাঙালি বুঝতে পারে না।

যদিও অনেকেই বলছেন যে হয়তো ছেলেকে নিয়ে গেছে কিন্তু ক্যামেরার সামনে আনে না কিন্তু বাকিদের মতামত যে কোথাও তো অন্তত একটু হলেও দেখা যাবে ছেলেকে। নুসরাত আর যশের যে একটি পুত্র সন্তান আছে সেটা বোধহয় লোকে ভুলেই গেছে।

অনেকে আবার তার হিন্দু সেজে শাখা পলা সিঁদুর পরাকে পছন্দ করেন না। কারণ যশের সঙ্গে তিনি বিয়েটা কবে করেছেন সেটা কারোর জানা নেই। সিঁদুর শাখা পলা তিনি কার নামে পরেন কে জানে। বর্তমানে তিনি এত রোগা হয়েছেন যে তার হাড্ডি সব বেরিয়ে গেছে। তাই তিনি যাই ছবি দিচ্ছেন তাতেই নেটপাড়া কটাক্ষ করছে।

Related Articles

Back to top button