বিনোদন

সন্তানের পিতৃপরিচয় প্রকাশ্যে আসার পরও অন্ত নেই কটাক্ষের, সোশ্যাল মিডিয়ায় ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা নুসরতের

গোটা দিনটাই এখন তাঁর কাটে তাঁর ছেলেকে নিয়ে নানান ব্যস্ততার মধ্যে। তিনি জানিয়েছেন যে তাঁর রাতের ঘুম উড়ে গিয়েছে। তবে ছেলের থেকে নানান নতুন জিনিস শিখছেন অভিনেত্রী। তিনি এও বলেন যে তাঁর ছেলে যেমন রোজ একটু একটু করে বড় হচ্ছে, তেমনিই তিনি নিজেও মা হিসেবে অভিজ্ঞ হয়ে উঠছেন। ঠিকই ধরেছেন, কথা হচ্ছে নুসরত জাহানকে নিয়েই।

গত জুন মাসে খবর মেলে যে নুসরত মা হতে চলেছেন। এই খবরে শোরগোল পড়ে যায় গোটা সোশ্যাল মিডিয়ায়। সকলেরই প্রশ্ন ছিল যে সন্তানের বাবা কে। নুসরতের স্বামী নিখিল জৈন স্পষ্ট জানান যে তিনি এই সন্তানের পিতা নন কারণ তিনি ও নুসরত দীর্ঘদিন আলাদা থাকেন।

এরপরই প্রশ্ন উঠতে থাকে তাহলে কী এই সন্তান অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের? কারণ, যশের জন্য়ই নাকি নিখিল ও নুসরতের সম্পর্কে ছেদ পড়ে। এরই মধ্যে নুসরত নিখিলকে তাঁর সহবাস সঙ্গী আখ্যা দিয়ে জানান যে তাদের বিয়ে ভারতীয় আইনে বৈধই নয়। তবে তাঁর সন্তানের বাব যশ কী না, তা নিয়ে অভিনেত্রী কিছু বলেন নি।

তবে নুসরতের অন্তঃসত্ত্বাকালীন অবস্থায় সবসময় তাঁর পাশে দেখা গিয়েছে যশকে। তাঁর নামের সঙ্গে মিলিয়েই নুসরত সন্তানের নাম রাখেন ঈশান(Yishaan)। এরপর গতকাল, বুধবার রাতে কলকাতা পুরসভার ওয়েবসাইট ঘেঁটে দেখা যায় যে নুসরতের সন্তানের পুরো নাম ঈশান জে দাশগুপ্ত ও বাবার নামের জায়গায় লেখা দেবাশিস দাশগুপ্ত।

যশের আসল নাম দেবাশিস, তা মোটামুটি সকলেরই জানা। নুসরতের সন্তানের বাবার নাম প্রকাশ্যে আসতেও নানান কটাক্ষ জোটে অভিনেত্রীর কপালে। অনেকেই নুসরতকে এই বলে কটাক্ষ করছেন, ‘তবে এতোদিন নিজেকে সিঙ্গল মাদার বলে দেখনদারির কী দরকার ছিল? কেন পুরুষতন্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর প্রতীক হয়ে বাহবা কুড়োচ্ছিলেন নুসরত জাহান”?

এই তর্ক-বিতর্ক নিয়ে যখন সোশ্যাল মিডিয়ায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে, তখনই ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ফুটে ওঠে নুসরতের এক ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা। তিনি লেখেন, “তুমি সকলকে খুশি করে চলতে পারো না, তুমি কোনও নিউটেলা জার নও”। আবার গতকাল, বুধবার রাতেও একটি ইঙ্গিতপূর্ণ বার্তা পোস্ট করে নুসরত লিখেছেন, “একমাত্র তোমার বালিশই জানে তোমার গল্পের প্রকৃত স্বরূপ, অন্য কেউ তা বুঝবে না”।

 

সম্প্রতি এক প্রমোশ্যানাল ইভেন্টে হাজির হন নুসরত জাহান। সেখানে তাঁকে তাঁর সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে প্রশ্ন করতেই সপাটে তিনি জবাব দিয়ে বলেন, “এটা একটা কঠিন প্রশ্ন, কারণ এটা কারুর চরিত্রে দাগ লাগিয়ে দেয়, বাবা জানেন বাবা কে, আমরা খুব ভালো সময় কাটাচ্ছি বাবা-মা হিসাবে। যশ এবং আমার দারুণ সময় কাটছে”।

Related Articles

Back to top button