সব খবর সবার আগে।

নারী শক্তিশালী হলেই সকলে তাঁকে অন্য নজরে দেখবে, সোশ্যাল মিডিয়ায় জল্পনামূলক পোস্ট নুসরতের

শেষ কিছুদিন ধরে অভিনেত্রী নুসরত জাহানকে নিয়ে বিতর্কের যেন অন্ত নেই। প্রত্যেকদিনই কোনও না কোনও বিতর্কে নাম জড়িয়েছে তাঁর। প্রথম থেকেই নিজের শর্তে জীবন কাটাতে পছন্দ করেন অভিনেত্রী। এই কারণেই কী তাঁর দিকে এত রকম অভিযোগ ও বিতর্কের আঙুল উঠছে? একরকম সেই প্রশ্নই ছুঁড়ে দিলেন নুসরত।

কিছুদিন আগেই শোনা যায় তাঁর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর। স্বামী নিখিল জৈন পরিস্কার জানিয়ে দেন, এই সন্তান তাঁর নয়। এরপরই কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি শুরু হয় এই সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে। সকলেরই ধারনা, এই সন্তান যশ ও নুসরতের ভালোবাসার ফল।

আরও পড়ুন- ‘নিজের ইচ্ছাতেই সহবাস করেছি বহুবার, শেষ পর্যন্ত বিয়েটা ভেঙে যায়’, করিনার কাছে গোপন তথ্য ফাঁস নীনার

এ নিয়ে মুখ খোলেন নি যশ বা নুসরত কেউই। এরপরই বিতর্ক তুঙ্গে ওঠে যখন নুসরত নিখিলের সঙ্গে তাঁর বিয়ে অস্বীকার করেন। এই সমস্ত ঘটনার মধ্যে দিয়ে একাধিকবার নানাভাবে নানান কটাক্ষের শিকার হতে হয় তারকা-সাংসদকে।

তবে প্রতিটি কটাক্ষ যেন নুসরতকে আরও বেশি শক্তিশালী করে তুলেছে। বরাবরই নিয়মের বেড়াজাল ভাঙতে ভালোবাসেন নুসরত। সমাজের চোখ রাঙানিকে মোটেই ভয় পান না তিনি। এবার এই নিয়েই একটি পোস্ট করলেন তিনি নিজের ইনস্টগ্রাম স্টোরিতে।

এদিন আন্তর্জাতিক মানের কবি সাবা খোদিরের লেখার একটি পঙক্তি উদ্ধৃত করে নুসরত বলেন, “নারীকে সবার পরামর্শ, শক্তিশালী হও। সেই নারী আপন শক্তিতে নিজের অবস্থান বদলালেই সমাজের চোখে তার পরিচয় বদলে যায়! তার নামের পাশে তখন নানা তকমা। তত ক্ষণে সেই নারী নিজের ক্ষমতায় ক্ষমতাশালী। ফলে, যতই তাকে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করা হোক, সে কারোর কথাই শুনবে না”।

এই পঙক্তির মধ্যে দিয়ে যেন কোথাও সাবা খোদির ও নুসরত মিলেমিশে এক হয়ে গেল। কোথাও যেন নিজের জীবনের কথাই তুলে ধরলেন অভিনেত্রী। এরই সঙ্গে প্রশ্ন রাখলেন সমাজের উদ্দেশ্যে যে নারী শক্তিশালী হলে কেন বারবার তাঁর দিকে আঙুল উঠবে?

আরও পড়ুন- বৃষ্টিমুখর দিনে প্রেমালাপ! বৃষ্টিতে ভিজে রোম্যান্টিক মুডে স্বস্তিকা, সঙ্গী হল কে?

কিছুদিন আগেই সামনে আসে নুসরতের বেবি বাম্পের ছবি। এই ছবি দেখার পর তাঁর অন্তঃসত্ত্বা হওয়া নিয়ে আর কোনও সংশয় থাকে না। এই ছবিতে তাঁকে দেখা গিয়েছে তাঁর ইন্ডাস্ট্রির আরও দুই বান্ধবী শ্রাবন্তী ও তনুশ্রীর সঙ্গে। ছবিতে নুসরতের চোখে মুখে ফুটে উঠেছে মাতৃত্বের আভা।

You might also like
Comments
Loading...