সব খবর সবার আগে।

‘তোমার বাবাকে জিজ্ঞেস করো, আমি কে”, সলমানের অহংকার নিমেষে ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছিলেন রাজকুমার

বলিউডের অত্যন্ত জনপ্রিয় অভিনেতা সলমান খান তিনি তাঁর অনুরাগীদের কাছে নানান নামে পরিচিত। কেউ তাঁকে ডাকেন সল্লু ভাই বলে, কারোর কাছে তিনি ভাইজান তো কারোর কাছে দাবাং। কোটি কোটি অনুরাগী রয়েছে তাঁর। শুধু দেশ নয়, বিদেশে মাটিতেও তাঁর ভক্তের সংখ্যা কম নয়। ত্রিশ বছরেরও বেশি সময় ধরে বলিউডে রাজ করছেন ভাইজান।

যারা সলমানকে ভালোভাবে চেনেন, তারা অবশ্যই জানেন যে অভিনেতার প্রচণ্ড রাগ। এই কারণে নানান সময় নানান বিতর্কেও জড়িয়েছেন তিনি। সলমান ভাইকে চটিয়ে যে বলিউডে টেকা যায় না, তা অনেকেই মানেন। এই কারণে নতুন মুখরা বিশেষ করে তাঁকে সমঝে চলার চেষ্টা করেন। কিন্তু এমন একজন ছিলেন যিনি সলমানের মুখের উপর জবাব দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন- মা উড়ালপুলের উপর গাড়ি থামিয়ে নাচের জেরে বিতর্ক, চালকের অভিযোগ মিথ্যে, দাবী স্যান্ডির, তবুও সাহায্যের আশ্বাস

সলমান খান বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখেন ১৯৮৮ সালে ‘বিবি হো তো অ্যাইসি’ ছবি দিয়ে। এই ছবিতে পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। এরপর প্রধান চরিত্রে তাঁকে দেখা যায় ‘ম্যায়নে প্যায়ার কিয়া’ ছবিতে যা সুপারহিট হয়। এই ছবির পর সলমানকে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি।

এই ছবির সাফল্যের পার্টিতে আমন্ত্রণ জানানো হয় সুরজ বারজাতিয়ার পরিবার ও রাজকুমারকে। ‘ম্যায়নে প্যায়ার কিয়া’ ছবিতে দারুণ সাফল্যের পর অহংকারে মাটিতে পা পড়ছিল না সলমানের। আর এই সাফল্যের পার্টিতেই নেশা করে একটি ভীষণ খারাপ অভিজ্ঞতা রয়েছেন সল্লু মিয়াঁর।

আরও পড়ুন- ভুল প্রশ্ন করেছেন অমিতাভ, ‘কেবিসি’ বিতর্ক নিয়ে সরব শো-য়ের প্রযোজক, শোরগোল নেট দুনিয়ায়

ছবির সাফল্য পার্টিতে এসেছিলেন সলমান খানও। সেকি পার্টিতে তিনি রীতিমতো নেশায় চুর হয়েছিলেন। সুরজ বারজাতিয়া তাঁকে সকলের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছিলেন। সেই সময় সুরজ বারজাতিয়া রাজকুমারের সঙ্গে সলমানের পরিচয় করাতে যান। সলমান রাজকুমারকে আগের থেকেই চিনতেন। কিন্তু তা-ও তিনি তাঁকে না চেনার ভান করে জিজ্ঞেস করেন, তিনি কে। এই প্রশ্নের উত্তরে রাজকুমারও সলমানকে উচিত জবাব দিয়ে বলেন, ‘তোমার বাবাকে জিজ্ঞেস করো আমি কে…”।

You might also like
Comments
Loading...