সব খবর সবার আগে।

করতেন ৩৫ টাকার চাকরি, খাবার থাকলেও জুটত না গাড়িভাড়া, হেঁটেই চলাফেরা করা সেই মানুষটিই আজ শতকোটি ছবির পরিচালক রোহিত শেট্টি

বলিউডে কোনও অ্যাকশন ছবি মানেই রোহিত শেট্টি। সম্প্রতিই মুক্তি পেয়েছে তাঁর নতুন ছবি ‘সূর্যবংশী’। এছাড়াও সামনেই মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ‘সিংহম’ ফ্র্যাঞ্চাইজির ছবি ‘সিংহম ৩’। তাঁর ছবি মানেই ১০০ কোটির ব্যবসা। কিন্তু এই পরিচালকেরই প্রথম জীবন কেটেছে বেশ কষ্টের মধ্যেই। সম্প্রতিই এক সাক্ষাৎকারে রোহিত নিজের জীবন সংগ্রামের কথা জানান।

রোহিত অ্যাকশন কোরিওগ্রাফার এম বি শেট্টির ছেলে। রোহিত গোলমাল ফ্র্যাঞ্চাইজি এবং তার কপ ইউনিভার্স অফ ফিল্ম এর কর্ণধার। তিনি বোল বচ্চন, চেন্নাই এক্সপ্রেস এবং দিলওয়ালে-সহ অন্যান্য সুপারহিট সব ছবি পরিচালনা করেছেন।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে রোহিত নিজের পুরনো জীবনের কথা মনে করে বলেন, “এই যাত্রাটা খুব একটা সহজ ছিলনা। সকলে ভাবেন আমি যেহেতু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সাথে ছোট বেলা থেকেই যুক্ত তাই আমার পক্ষে এই কাজ খুব সহজ ছিল। আমি প্রথম চাকরিতে ঢুকি মাত্র ৩৫ টাকা বেতনে। অনেক সময় এমন হয়েছে আমায় খাবার এবং বাসভাড়ার মধ্যে একটা বেছে নিতে হয়েছে। অনেক দূর দূর পর্যন্ত পয়সার অভাবে হেঁটেই চলাফেরা করেছি”।

এই সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, “আমরা সান্তা ক্রুজে থাকতাম এবং তারপরে আমরা দহিসরে, আমার ঠাকুমার বাড়িতে চলে আসি। আর্থিকভাবে তখন অনেক সংকট ছিল, আমাদের থাকার জন্য ঘর ছিল না। আমার ঠাকুমা থাকতেন দহিসরে”।

রোহিতের সংযোজন, “তারপর হাঁটতে শুরু করলাম। মালাড থেকে আন্ধেরি পর্যন্ত অনেকবার হেঁটে যেতাম। রোদে আমার দেড় থেকে দুই ঘণ্টা লেগে যেত। আমি অনেক অলিগলি চিনি তাই এখন যখন ড্রাইভারকে বলি। ‘এই পথ ধর, ওটা নয়’, সে রিয়ারভিউ আয়নায় আমার দিকে তাকায় আর ভাবে আমি কী করে জানলাম, আগে কি চোর ছিলাম?”

উল্লেখ্য, রোহিত শেট্টির ‘সূর্যবংশী’ ছবিটি এখন সিনেমা হল কাঁপাচ্ছে। এই ছবিতে অভিনয় করেছেন অক্ষয় কুমার। মুম্বইয়ের সন্ত্রাসবিরোধী স্কোয়াডের প্রধান ডিসিপি বীর সূর্যবংশীর চরিত্রে দেখা যাবে অক্ষয় কুমারকে। এই ছবির নায়িকা হলেন ক্যাটরিনা কাইফ। এছাড়াও এই ছবির ক্যামিওতে দেখা গিয়েছে অজয় দেবগন ও রণবীর সিংকে।

You might also like
Comments
Loading...