সব খবর সবার আগে।

মার মতই খাদ্যরসিক ছেলেও! মামার বাড়িতে পাতে লুচি পেয়ে আনন্দে আত্মহারা সুদীপার ছেলে আদিদেব, ভাইরাল ভিডিও

পুজো এসে গিয়েছে। এরইমধ্যে যদি খেতে বসে পাতে ওঠে গরম গরম ফুলকো লুচি আর সাদা আলুর তরকারি সঙ্গে গোল গোল বেগুন ভাজা। তাহলে তো আর কথাই নেই। দেখলেই মুখে হাসি ফুটে উঠবে বাঙালির। তবে এমন জলখাবার সবার পাতে কি পড়ে? কিন্তু এই খাবার পেয়ে দারুন খুশি আদিদেব চট্টোপাধ্যায়। কথা হচ্ছে টলিউডের জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব সুদীপার ছেলের। যার পাতে এই খাবার পড়লে উচ্ছ্বাসের শেষ থাকে না।

সুদীপা চ্যাটার্জী ও অগ্নিদেব চট্টোপাধ্যায়ের ছোট্ট ছেলে আদিদেব বেশ খাদ্য রসিক। তাকে যদি এইসব লোভনীয় খাবার দেওয়া হয়, তবে সে আনন্দে আত্মহারা হয়ে ওঠে। আর ছেলের সেই উচ্ছ্বাস অনুরাগীদের দেখানোর লোভ সামলাতে পারলেন না সুদীপাও। সঙ্গে সঙ্গে সেই মুহূর্তের রিল ভিডিও বানিয়ে পোস্ট করলেন ফেসবুকে। সঙ্গে দিয়েছেন ‘লুচি খাবি আয়’ গান। পাশে সুদীপার মন্তব্য, “মামাবাড়ি ভারী মজা, কিল চড় নাই।”

তবে কি এখন ছেলেকে নিয়ে বাপের বাড়িতে রয়েছেন অভিনেত্রী? এদিন সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, “ছোটো হলে কি হবে! আদিদেবের কাঁধে রয়েছে বিশাল দায়িত্ব। বাড়ির পুজোয় সবাইকে নিমন্ত্রণ জানাতে সে মামাবাড়ি গিয়েছিল। চট্টোপাধ্যায় বাড়ির পুজোয় আমার বড়দাদার বিশেষ ভূমিকা। গঙ্গায় এক ডুবে ঘট ভরা, ঘট বিসর্জন, পূজার ভোগ রান্না, সবেতেই জড়িয়ে থাকে আদিদেবের বড় মামা। তাই প্রতিবছর আমার বাপের বাড়ির সবাইকে তত্ত্ব পাঠিয়ে আমন্ত্রণ জানানো হয়। এবার অগ্নিদেব সেই দায়িত্ব দিয়েছে আদিকে।”

পাশাপাশি এদিন অভিনেত্রী জানালেন, মামা-ভাগ্নে একজন আরেকজনকে চোখে হারায়। তাই এবার মামাবাড়ি যেতেই তাকে জামাই আদরে আপ্যায়ন করেছে তার মামারা। পুজো যত এগিয়ে আসছে আদিদেবের খুশি ততই বাড়ছে। তা সোশ্যাল মিডিয়াতেও ধরা পড়েছে। দু’দিন আগেই বাড়ির প্রতিমা তৈরীর ভিডিও দিয়েছিলেন রান্নাঘরের সঞ্চালিকা। সেখানেই দেখা গিয়েছিল মুখে মাক্স পড়ে কাজে তদারকি করতে ব্যস্ত ছেলে। ক্যামেরার সামনে আসতেই দুষ্টুমি করতে দেখা যায় আদিদেবকে।

কখনও ভেংচি কাটছে তো কখনও আবার হেসে ফেলছে। এবছর চট্টোপাধ্যায় বাড়ির পুজো হতে চলেছে বেশ আনন্দেই। ছোট আদিদেবের দায়িত্বে এবারের পুজো আরো জমজমাট।

You might also like
Comments
Loading...