সব খবর সবার আগে।

ছেলের হালহকিকত জানতে চেয়ে উদ্বিগ্ন মেসেজ, সুশান্তের বাবাকে উত্তর দেননি রিয়া চক্রবর্তী

রিয়া চক্রবর্তীকে ছেলের মানসিক অবস্থা নিয়ে বারংবার জিজ্ঞাসা করেছেন সুশান্ত এর বাবা কে কে সিং। রিয়া তাঁর বাবার মেসেজ হোয়াটসঅ্যাপে সীন করে রেখে দেন বলে অভিযোগ! এবং সেই মেসেজের স্ক্রিন শট এবার প্রকাশ পেল একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে। রিয়া ছাড়াও সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার শ্রুতি মোদীকেও বারংবার মেসেজ করেছিলেন সুশান্তের বাবা। তিনিও কোনো উত্তর দেননি।

স্ক্রিনশটে দেখা যাচ্ছে মেসেজগুলি ব্লু টিক হয়েছে। অর্থাৎ সীন করে রেখে দেওয়া হয়েছে কোন উত্তর দেওয়া হয়নি। গত বছরের ২৯ শে নভেম্বর রিয়াকে সুশান্তের বাবা লেখেন, “যখন জেনেই গিয়েছ যে আমি সুশান্তের বাবা, তখন কথা বললে না কেন? তোমার ব্যাপার কী? তুমি বন্ধু হয়ে ওর দেখাশোনা করছ এবং চিকিৎসা যখন করাচ্ছো তখন আমাকে কেন কিছু জানানো হয়নি? আমারও অধিকার রয়েছে সুশান্ত সম্পর্কে সব কিছু জানার। এই জন্য ফোন করে আমাকে সব খবর জানাও।” কিন্তু এখানে রিয়ার কোন উত্তর দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না।

আবার সেই দিনই শ্রুতি মোদীর সঙ্গেও হোয়াটসঅ্যাপ-এ যোগাযোগ করেন কে কে সিং। তিনি লেখেন, “সুশান্ত এর সকল ঋণের বিষয় তুমিই দেখাশোনা করো সেটা আমি জানি। আমি ফোন করতে চাই সুশান্ত এখন কেমন আছে সেটা জানতে। সুশান্ত’র সঙ্গে যখন কাল কথা বলেছিলাম ও বলেছিল খুব সমস্যায় রয়েছে। বাবা হয়ে কতটা দুশ্চিন্তা হয় ভাবো। ‌আমি এই জন্যই তোমার সঙ্গে কথা বলতে চাইছি কিন্তু তুমি উত্তর দিচ্ছ না। এবার আমি মুম্বই যেতে চাই, আমার টিকিট পাঠিয়ে দাও।” শ্রুতি এই মেসেজের উত্তর দিয়েছিলেন কিনা তা জানা যায়নি। ফলে গোটা ঘটনায় ফের আরেকবার কাঠ গড়ায় উঠলেন রিয়া। ‌এবার তার সঙ্গে নাম জুড়ে গেল সুশান্তের প্রাক্তন ম্যানেজার শ্রুতি মোদীরও।

প্রসঙ্গত, গত মাসে সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা, আর্থিকভাবে আত্মসাৎ ও মানসিক নির্যাতনের মত বিবিধ অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির অন্তর্গত একাধিক ধারায় তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তী, প্রাক্তন ম্যানেজার শ্রুতি মোদী-সহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন সুশান্তের বাবা কে কে সিং।

You might also like
Leave a Comment