বিনোদন

শরীর সুগঠিত না হলে মেয়েদের আধুনিক পোশাকে মানায় না, নারীদের ‘বডি শেমিং’ করার অভিযোগ তসলিমা নাসরিনের বিরুদ্ধে

এমনিতে তিনি মাঝেমধ্যেই চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসেন। খবরের শিরোনামেও তাঁর প্রায়ই আসা-যাওয়া। নিজের কোনও মন্তব্যের কারণেই হোক কোনও ঘটনার প্রেক্ষিতে কাউকে জবাব দিতে, প্রকাশ্যে মতামত জানাতে ভোলেন না বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিন। এবার ফের একবার বিতর্কের মুখেও পড়লেন তিনি।

কোনও সেলিব্রিটি হোক বা সাধারণ মহিলা, তাঁর শরীরের গঠন, সাজ-পোশাক নিয়ে মাঝেমধ্যেই নানান কথা ওঠে। নানান মহিলা তারকাকে ‘বডি শেমিং’ করা না সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোল করা তো এখন প্রায় অভ্যাসে দাঁড়িয়ে গিয়েছে বলা যায়। এবার নারীদের শারীরিক গঠন নিয়ে মন্তব্য করলেন তসলিমা।

একটি ফেসবুক পোস্ট করেন তিনি। সেই পোস্টে তিনি বেশ স্পষ্টভাবেই জানিয়েছেন যে কোনও নারীর শরীর যদি সুগঠিত না হয়, তাহলে তাঁকে আধুনিক কোনও পোশাকে মানায় না। অন্তত তিনি নিজে তেমন নারীদের দেখতে পছন্দ করেন না।

এই পোস্টে তিনি লেখেন, “সুগোল সুডোল ফার্ম স্তন দেখতে আমার খুব ভালো লাগে। মেয়েরা স্তন দেখানো, ক্লিভেজ দেখানো জামা পরলে বেশ লাগে দেখতে। সুদর্শন পুরুষদের যেমন শর্টস পরলে বা সুঠাম বাইসেপ দেখানো স্লিভলেস টিশার্ট, বুকের লোম দেখানো ডীপ ভি নেক টিশার্ট পরলে দেখতে ভালো লাগে, তেমন মেয়েদের কিছুটা নিতম্ব ঝিলিক দেওয়া সুগঠিত পা দেখানো মিনি শর্টস পরলে, ক্লিভেজ বা অর্ধেক স্তন দেখানো, পেট এবং নাভি দেখানো ছোট টপ পরলে দেখতে বেশ লাগে। কিন্তু আজকাল কী যে হয়েছে, যার স্তন দেখতে ভালো নয়, স্যাগিং, বা প্রায় ফ্ল্যাট, তারাও, বিশেষ করে সাংস্কৃতিক জগতের সেলেব্রিটিরা ডীপ ভি নেক ড্রেস পরেন। কেন যে পরেন, কী দেখাতে, বুঝি না। আর বিশাল বপুর কুচ্ছিত পুরুষগুলোও আঁটসাঁট জামা পরে চললেন। চোখ সরাতে পারলে বাঁচি!”

তাঁর এই পোস্ট সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ঝড় তুলেছে বলা যেতে পারে। দু’ভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছেন নেটিজেনরা। একাংশের কথায়, কোনও মহিলা কী ধরণের পোশাক পরবেন, তা তাঁর একান্ত ব্যক্তিগত ব্যাপার। শরীর সুগঠিত হলে তবেই সে নিজের পছন্দের পোশাক পরতে পারবে, আর তা না হলে তাঁর কোনও আধুনিক পোশাক পরার অধিকার নেই, এমনটা কখনই হওয়া উচিত নয়।

অনেকেই তসলিমা নাসরিনের এই পোস্টের বিরোধিতা করে লিখেছেন যে এমন একটি পোস্ট করে লেখিকা আসলে নারীদের ভাবাবেগে আঘাত করেছেন। কে কোন পোশাক কতটা সুন্দর করে ‘ক্যারি’ করতে পারছে, সেটাই আসল ব্যাপার, শরীর সুগঠিত হওয়া বা না হওয়া সেটা গৌণ হতে পারে না বলে মত নেটিজেনদের একাংশের। তবে অনেকেই আবার তসলিমার এই যুক্তিকে মেনেও নিয়েছেন।

Related Articles

Back to top button