বিনোদন

‘আমি নুসরতকে অপছন্দ করি, ও বড্ড দাম্ভিক’, হঠাৎ নুসরতকে এমন কথা কেন বললেন যশ?

যশ ও নুসরত, সংবাদমাধ্যম থেকে শুরু করে সোশ্যাল মিডিয়া, তাদের নিয়ে চর্চার যেন শেষ নেই। গত এক বছরেই তাদের সম্পর্কের সমীকরণে আমূল পরিবর্তন এসেছে। প্রথমের দিকে মুখে কুলুপ আঁটলেও, এখন নিজেদের প্রেম নিয়ে কোনও রাখঢাক নেই তাদের মধ্যে। এমনকি এই জুটি এমন ইঙ্গিতও দিয়েছেন যে তারা বিয়েটাও সেরে ফেলেছেন। ছেলে ঈশানকে নিয়ে দিব্যি দিন কাটছে তাদের।

‘ওয়ান’ ছবিতেই প্রথমবার একসঙ্গে কাজ করেন যশ ও নুসরত। তবে সেই ছবির সময় তাদের মধ্যে সখ্যতা মোটেই গড়ে ওঠেনি। তবে ‘এসওএস কলকাতা’ সবটা পালটে দেয়।

যশ তো বলেই দিলেন, “আমি ওকে সহকর্মী হিসাবে একদম অপছন্দ করতাম, আমার মনে হত নুসরত ভীষণ দাম্ভিক”। হ্যাঁ, সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানালেন যশ। অন্যদিকে সেই ইংরাজি দৈনিককে নুসরত জানান, “আমার বন্ধুরা পরামর্শ দিয়েছিল যশের থেকে দূরত্ব বজায় রাখবার”। কিন্তু মাত্র কয়েকমাসের মধ্যেই সমস্ত কিছু পালটে গিয়েছে।

ঈশানের অভিভাবকের দায়িত্ব কেমনভাবে পালন করছেন তারা দুজনে? এই বিষয়ে নুসরত বলেন, “দুর্দান্ত। এখনও মাঝেমধ্যেই বিশ্বাস করতে পারি না। তবে সৌভাগ্যবশত আমাকে একা সব দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে না। যশ সব কাজে এগিয়ে আসে। আমি অনেক সময় বুঝতে পারি না ঈশান কী বলতে চাইছে, কিন্তু যশ অসাধারণ বাবা”।

এদিকে আবার পাশ থেকে মুচকি হেসে যশ বললেন, “নুসরত মা হিসাবে দারুণ, আমি বিশ্বাস করি মেয়েরা যখন মা হয়, তখন সহজাতভাবেই সে জানে বাচ্চাকে কীভাবে লালন-পালন করতে হয়”।

ঈশান নুসরতের প্রথম সন্তান হলেও যশের ক্ষেত্রে কিন্তু তা নয়। তাঁর ৯ বছরের একটি ছেলে রয়েছে, সেকথা নিজেই জানিয়েছিলেন যশ। তবে সেই সন্তানকে নিয়ে প্রকাশ্যে খুব বেশি কথা বলেননি তিনি।

গত মাসে ‘চিনে বাদাম’ ছবির শ্যুটিংয়ের ফাঁকে ঈশান প্রসঙ্গে যশ বলেন, “ঈশান খুব ছোট। সবে ১৫ দিন বয়স। এতো তাড়াতাড়ি কিচ্ছু পরিবর্তন আসে না, বিশ্বাস করুন। আমার ছেলে আছে, যার ইতিমধ্যেই ৯ বছর বয়স হয়ে গেছে, এতো তাড়াতাড়ি কিচ্ছু চেঞ্জ আসে না। এটা সংবাদমাধ্যমের বাড়াবাড়ি”। এই সাক্ষাৎকারেই প্রথমবার বড় ছেলের কথা নিজের মুখে বলেছিলেন যশ। যশ ও তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী শ্বেতা সিংহ কালহানসের ছেলে যশের কাছেই থাকে।

Related Articles

Back to top button