সব খবর সবার আগে।

আজ আন্তর্জাতিক যোগ দিবস, এবারের থিম- যোগা ফর হেলথ, যোগা অ্যাট হোম। জেনে নিন যোগার উপকারিতা

বর্তমান কালে পৃথিবীর যা পরিস্থিতি তাতে মানসিক ও শারীরিক সুস্থতা দুইই সমানভাবে বজায় রাখতে আমাদেরকে প্রবলভাবে সচেষ্ট হতে হবে। চারিদিকের এই পরিস্থিতিতে আমাদের মন ও শরীর দুটোই সতেজ রাখা বড় দায়। কিন্তু একটি উপায় আছে যা দিয়ে আমরা মন ও শরীর দুটোই ভালো রাখতে পারি। তা হল যোগ ব্যায়াম বা যোগা। প্রাচীন ভারতে আবিষ্কৃত এই মহৌষধি বর্তমানে গোটা বিশ্বকে সুস্থতার পথ দেখাচ্ছে। আজ একুশে জুন বিশ্ব যোগ দিবস (International Yoga Day)। ২০১৫ সাল থেকে এই দিনটিকে বিশ্ব যোগ দিবস (International Yoga Day) হিসেবে পালন করা হয় মূলত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) উদ্যোগে। ২০১৪ সালে ইউনাইটেড নেশন (United Nations) অ্যাসেম্বলিতে তিনি যোগ দিবস পালনের প্রস্তাব রাখেন। যোগ দিবস পালন করার জন্য তিনি একুশে জুন দিনটিকে বেছে নেন কারণ এই দিনটির একটি বিশেষ মহাজাগতিক বৈশিষ্ট্য আছে। একুশে জুন উত্তর গোলার্ধে সবচেয়ে বড় দিন। তাই এই দিনটিকে প্রধানমন্ত্রী (Narendra Modi) যোগ দিবস হিসেবে পালন করার জন্য বেছে নিয়েছিলেন এবং ইউনাইটেড নেশনস (United Nations) তাঁর এই প্রস্তাবকে মান্যতা দিয়ে গোটা বিশ্বে ২০১৫ সাল থেকেই এই দিনেই যোগ দিবস (International Yoga Day) পালন করে আসছে।

এইদিন ভারত সরকার থেকে গোটা দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন রকম ভাবে যোগ দিবস পালন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী নিজে বিশেষভাবে আধঘন্টা থেকে এক ঘন্টা যোগ অভ্যাস করেন এই দিন সকালে। তার সঙ্গে যোগ দেন কেন্দ্রীয় আরও মন্ত্রীরা। আমাদের রাজ্যেও এই দিনটিকে মহাসমারোহে পালন করা হয়।

কিন্তু বর্তমানে লকডাউনের পরিস্থিতিতে কি যোগ দিবস পালন করা সম্ভব হবে?

২০১৫ সালে যখন প্রথম যোগ দিবস পালন করা হয়েছিল তখন দিল্লির রাজপথে প্রায় ৩৫ হাজার মানুষকে নিয়ে যোগ অভ্যাস করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী‌। সেইদিন মোট ২১ টি যোগাসন অভ্যাস করা হয় এবং প্রায় ৮৪ টি দেশের মানুষ তাঁর সঙ্গে যোগ দিবসে অংশগ্রহণ করে।

কিন্তু এই বছর স্বাভাবিকভাবেই দিল্লির রাজপথে একসঙ্গে এতজন মানুষ মিলে যোগব্যায়াম অভ্যাস করা কোনভাবেই সম্ভব নয়। এই বছর আয়ুষ মন্ত্রকের থিম হলো যোগা ফর হেলথ-যোগা অ্যাট হোম (Yoga for Health-Yoga at Home)। এই বছর যে যার বাড়িতে বসেই সকালবেলায় যোগা করবেন। আজ সকালে ইতিমধ্যেই জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

কেন্দ্র থেকে আজকের দিনটিকে যাতে বাচ্চাদের মধ্যে আকর্ষণীয় করে তোলা যায় সেজন্য একটি অভিনব পদক্ষেপও নেওয়া হয়েছে। আয়ুষ মন্ত্রকের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে বাচ্চাদের প্রিয় কার্টুন চরিত্র গুলি কে নিয়ে কিছু ছোট্ট ভিডিও ক্লিপ ও ছবি পোস্ট করা হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে যে এই কার্টুন চরিত্রগুলি বিভিন্ন যোগব্যায়াম অভ্যাস করছে। বাচ্চারা সহজেই এই কার্টুন গুলো দেখে আকৃষ্ট হবে এবং তারা যোগ অভ্যাসে মন দেবে এরকমটাই আশা করছে আয়ুষ মন্ত্রক।

এবারে সবাই একত্রিত হয়ে অন্যান্য বছরের মতো বিশ্ব যোগ দিবস পালন করবেন না  ঠিকই কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার আশা করছেন এই বছর নিজেদের ঘরে থেকেই প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ সূর্য নমস্কারে অংশগ্রহণ করবেন।

কেন্দ্র থেকে আরও জানানো হয়েছে যে এখনো পর্যন্ত প্রায় ৯৬ হাজার মানুষকে প্রধানমন্ত্রীর তৈরি করা বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে উপযুক্ত প্রশিক্ষণ নেওয়ার পর যোগা ইনস্ট্রাক্টর হিসাবে সরকারি স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে।

You might also like
Leave a Comment