লাইফ স্টাইল

শুধু মেয়েদেরই নয়, ঠোঁটের ধরন বুঝে ছেলেদেরও ঠোঁটের যত্ন নেওয়ার উপায়

মুখের সৌন্দর্য্য অনেকখানি নির্ভর করে ঠোঁটের উপর। শীত ছাড়াও সব মরসুমেই ঠোঁটের আলাদা যত্নের দরকার হয়। শুধু মেয়েদেরই নয়, ঠোঁটের ধরন বুঝে ছেলেদেরও ঠোঁটের যত্নের প্রয়োজন পড়তে পারে।

প্রতিদিন ক্লিনজিং মিল্ক দিয়ে ঠোঁট পরিষ্কার করা উচিত। মাঝেমধ্যে ব্রাশ দিয়ে ঠোঁট হালকা ব্রাশ করে নিতে পারেন। এতে মরা কোষ ঝরে যাবে। সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে বাঁচতে রোদে বের হওয়ার আগে লিপবাম বা নারকেল তেল লাগিয়ে এর ওপর লিপস্টিক লাগান।

রাতে ঘুমানোর আগে অবশ্যই ক্রিম বা ভেজা তুলার সাহায্যে লিপস্টিক তুলে ভ্যাসলিন লাগিয়ে নিন। মনে রাখা জরুরি, বারবার জিভ দিয়ে ঠোঁট চাটা বা ঠোঁট কামড়ানো খুব খারাপ অভ্যাস। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এ অভ্যাস ছাড়ুন।

ভিটামিন ‘সি’র অভাবে ঠোঁটের কোণা ফেটে যায়। এ জন্য ভিটামিন ‘সি’যুক্ত খাবার ও ট্যাবলেট খেতে পারেন। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। এ ছাড়া ঘরে বসেই ঠোঁটের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করা সম্ভব।

শুষ্ক ঠোঁটের সমস্যা : ঠোঁটের শুষ্কতা কমাতে সব সময় সঙ্গে ভ্যাসলিন ব্যবহার করুন। প্রচুর পরিমাণে জল খাবেন। যাদের ঠোঁট অতিরিক্ত শুষ্ক তারা প্রতিদিন মধু, গোলাপজল ও কমলালেবুর রস মিশিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে এলে ধুয়ে ফেলুন।

ফাটা ঠোঁটের সমস্যা : অনেক সময় নিচের ঠোঁট থেকে চামড়া ওঠে। এসব চামড়া হাত দিয়ে না তুলে বরং ভ্যাসলিন ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া যাবে।

কালচে ঠোঁটের সমস্যা : সপ্তাহে দুই দিন লিপপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন। দুধের সর, মধু একসঙ্গে মিশিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে ২০ মিনিট রেখে ভেজা তুলো দিয়ে মুছে ফেলুন। নিয়মিত করতে পারলে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হবে। এ ছাড়া ঘুমাতে যাওয়ার আগে ঠোঁটে চন্দন লাগাতে পারেন। ঠোঁটের কোণায় কালোভাব কমাতে শশা ও পাতিলেবুর রস মিশিয়ে দিনে তিন থেকে চারবার ঠোঁটে লাগালে উপকার পাওয়া যাবে। ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করতে মুলতানি মাটিতে কয়েক ফোঁটা মধু ও কাঁচাদুধ মিশিয়ে লাগান। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

মসৃণ ঠোঁটের জন্য : ঠোঁটের মসৃণতা বজায় রাখতে স্ট্রবেরির ক্বাথ, মধু ও দুধের সর মিশিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে রাখুন। মিনিট বিশেক পরে ধুয়ে ফেলুন। কোমলতা বজায় রাখতে প্রতিদিন গ্লিসারিন, অলিভ অয়েল, মধু ও গোলাপজল মিশিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে রেখে ১০ মিনিট পর আলতো ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন।

Related Articles

Back to top button