বাংলাদেশ

প্রেম বয়স মানে না! ৯০ বছরের আইনজীবীর সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে নতুন সংসার শুরু করলেন বছর ৪০-এর কনে

বয়স তো সংখ্যা মাত্র। প্রেমে বয়সটা কোনও ব্যাপার নয়। যে কোনও বয়সে মানুষ প্রেমে পড়তে পারে। আর প্রেমে পড়লে তো জাত-ধর্ম-বর্ণ-বিদ্বেষ-বয়স সবকিছুই হার মানে। তেমনটাই সকলে শুনে এসেছেন। ফের এমনই এক উদাহরণ তৈরি করলেন বাংলাদেশের এক নবদম্পতি। এক আইনজীবী বিয়ে করলেন এক ৪০ বছরের মহিলাকে যা নিয়ে প্রতিবেশী দেশে এখন হইচই।

বাংলাদেশের কুমিল্লা জেলার পাঁচবারের সভাপতি হলেন আইনজীবী মোহম্মদ ইসমাইল। বয়স ৯০ বছর। তিনি ম্যাট্রিক পাশ করেন ১৯৪৭ সালে। এরপর ১৯৪৯ সালে ইন্টারমিডিয়েট ও প্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাস নিয়ে পড়াশোনা করেন। ফজলুল হকের ছাত্র ছিলেন তিনি। গত সোমবার এই ইসমাইলই বিয়ে করেন নিজের চেয়ে ৫০ বছরের ছোটো মিনু আরাকে। মিনুর বয়স ৪০ বছর।

ইসমাইলের চেহারা হালকা–পাতলা। মাথার পুরো চুল সাদা তাঁর। গায়ের রং ফর্সা। সব সময় কোট-টাই পরে থাকেন তিনি। গত সোমবার বিকেলে ছাদনাতলায় পিঁড়িতে বসেন ইসমাইল। এই বিয়েতে উপস্থিত ছিলেন তাঁর ৫ ছেলে ও ১ মেয়ে এবং নাতি-নাতনিরা।

কুমিল্লা বারের প্রবীণ আইনজীবীর বিয়ের খবর ছড়িয়ে পড়তেই শহরজুড়ে ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি হয়। এই বিয়ের বিষয়ে অ্যাডভোকেট মোহম্মদ ইসমাইল কোনও কথা বলতে চাননি। এই কারণে সাংবাদিকরা এই বিষয়ে তাঁর কোনও মতামত জানতে পারেনি। সাত বছর আগে ইসমাইলের স্ত্রী প্রয়াত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। এই একাকীত্ব কাটাতেই ফের জীবনসঙ্গী খুঁজে নিলেন ইসমাইল।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, কনে মিনুর বাড়ি দেবিদ্বার উপজেলায়। তবে কুমিল্লা জেলার দেশওয়ালীপট্টিতে ভাড়া থাকতেন তিনি। তাঁর পরিবারের উপস্থিতিতেই এই বিয়ে হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আইনজীবীর এই বয়সে বিয়ের হওয়ার খবর পেয়ে মিষ্টি হাতে তাঁর বাড়িতে আসেন তাঁর সহকর্মী ও অনুজরা। আইনজীবীদের নানান সংগঠনের নেতৃবৃন্দও নবদম্পতিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button