বাংলাদেশ

বিয়ের আটমাসের মধ্যেই স্ত্রীকে তালাক দিয়ে নাবালিকা শ্যালিকাকে বিয়ে! সেই নাবালিকা এখন অন্তঃসত্ত্বাও

সাধারণত বলা হয় সিনেমা তৈরি হয় বাস্তব ঘটনা নিয়ে এবার প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে যা ঘটলো সিনেমার চিত্রনাট্য কেও হার মানিয়ে দেবে। বিয়ে করার ৮ মাসের মধ্যেই স্ত্রীকে তালাক দিয়ে নাবালিকা শ্যালিকাকে বিয়ে করল এক যুবক। সেই নাবালিকা এখন অন্তঃসত্ত্বাও হয়ে পড়েছে‌। বরিশালের মুলাদী উপজেলার কাজিরচর ইউনিয়নের এই ঘটনায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

আজ থেকে প্রায় আট মাস আগে ওই যুবকের সঙ্গে পাশের মেহেদীগঞ্জ উপজেলায় এক যুবতীর বিয়ে হয়।কিন্তু বিয়ের কিছুদিন পরেই নাকি নিজের শ।শ্যালিকাকে অত্যন্ত ভালো লেগে যায় ওই যুবকের। ‌ গোপনে তাদের সম্পর্ক গভীর হতে থাকে।

এদিকে স্ত্রী প্রথমে কিছু বুঝতে পারেন না।বিভিন্ন সময়ে তার বোনকে নিয়ে তার স্বামী আত্মগোপন করে থাকতেন সে কথা তিনি নিজের মুখেই বলেছেন। পরে যখন তিনি জানতে পারেন, উপজেলার প্যাদারহাট এলাকায় বোনকে নিয়ে তার স্বামী বাড়ি ভাড়া করে থাকতে শুরু করেছেন তখন তিনি স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই অশান্তি শুরু হয়। তখনই স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন ওই যুবক। এরপরই তিনি আবার বিয়ে করেন তাঁর শ্যালিকাকে।গোটা ঘটনার কথা স্বীকার করে যুবক বলেন, “প্রথম স্ত্রীকে নিয়ে আট মাসের মতো সংসার করেছি। কয়েক দিন আগে ওকে তালাক দিয়ে ওর ছোট বোনকে বিয়ে করেছি।”

ঘটনার কথা প্রকাশ্যে আসতেই হতবাক হয়ে গিয়েছেন প্রতিবেশীরা। নাবালিকা বিয়ে করে পুলিশের জালে জড়িয়ে গিয়েছেন ওই যুবক। কাজিরচর ইউনিয়ন নিকাহ রেজিস্ট্রার কাজি নূর শরীফ জানান, ওই যুবক গত ২৫ এপ্রিল প্রথম স্ত্রীকে খোলা তালাক প্রদান করেছিলেন। আর ২৯ এপ্রিল তারই ছোট বোনকে বিয়ে করেন। কাজিরচর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মন্টু বিশ্বাস বলেন, বড় বোনের খোলা তালাক রেজিস্ট্রি করার চারদিনের মাথাতেই নাবালিকা ছোট বোনকে বিয়ে করা যুক্তিসঙ্গত নয়। বিষয়টি নিকাহ রেজিস্ট্রারের কাছে জানতে চাওয়া হবে।

মুলাদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাকসুদুর রহমান জানান, নাবালিকা স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

Related Articles

Back to top button