সব খবর সবার আগে।

অনুপ্রেরণা মোদী, শেখ হাসিনার জন্মদিনেও রেকর্ড টিকাকরণের উদ্যোগ নেওয়া হল প্রতিবেশী দেশে

ভারতের মতোই এবার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনেও রেকর্ড করনা টিকাকরণের পরিকল্পনা নেওয়া হল ওপার বাংলায়। আগামী মঙ্গলবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন। এই দিনই গণ টিকাকরণ কর্মসূচির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

আজ, রবিবার দুপুরে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে একটি ভার্চুয়াল বৈঠক করেন বাংলাদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক। সেই সময়ই এই গণটিকাকরণ কর্মসূচির কথা জানান তিনি। তাঁর কথায়, আগামী ২৮শে সেপ্টেম্বর ম্নগল্বারন দেশের প্রায় ৮০ লক্ষ জনগণকে করোনার টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

এও জানানো হয়েছে যে যারা টিকা নেওয়ার জন্য নাম নথিভুক্ত করেছেন অথচ টিকা পান নি, তাদের এদিন অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এছাড়াও যারা দূরদূরান্ত থেকে আসছেন বা বয়স্ক ও বিশেষ চাহিদাসম্পন্নরা টিকাকরণে অগ্রাধিকার পাবেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক জানান যে ২৮শে সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা থেকে এই টিকাকরণ কর্মসূচি শুরু হবে।

আরও পড়ুন- নিজের বাড়ির বিদ্যুৎ পরিষেবার জন্য ট্রান্সফরমার বসাতে দিনমজুরের বাড়ি ভাঙলেন তৃণমূল নেতা, বাধা দেওয়ায় গৃহকর্ত্রীকে বিবস্ত্র করে মারধর

সরকারের তরফে এও জানানো হয়েছে যে ওইদিন শুধুমাত্র টিকার প্রথম ডোজই দেওয়া হবে। চিন থেকে আমদানি করা সিনোফার্মের করোনা টিকা দেওয়া হবে বলে খবর। স্বাস্থ্যমন্ত্রী এও জানান যে এখনও পর্যন্ত টিকার ৫ কোটি ডোজ মিলেছে। এর মধ্যে সাড়ে তিন কোটি দেওয়া হয়ে গিয়েছে। বাকি দেড় কোটি টিকা যে রয়েছে,। তাই-ই দেওয়া হবে আগামী মঙ্গলবার।

এই গণটিকাকরণ কর্মসূচিতে সিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভা এলাকা মিলিয়ে প্রায় ৬ হাজারেরও বেশি কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। কেবলমাত্র পরিচয়পত্র ও টিকার নিবন্ধন কার্ড নিয়ে গেলেই পাওয়া যাবে টিকা। এও জানান হয়েছে যে রেজিস্ট্রেশন কার্ডে যে কেন্দ্রের নাম উল্লেখ করা হয়েছে, সেখান থেকেই টিকা নিতে হবে। ২৮ সেপ্টেম্বরের আগেই টিকা নেওয়ার মেসেজ চলে যাবে। তবে গর্ভবতী মহিলা ও দুগ্ধপান করা শিশুয়ের মায়েদের আপাতত টিকা দেওয়া হবে না।

এর আগে বাংলাদেশে গণটিকাকরণ কর্মসূচিতে একদিনে প্রায় ৪৫ লক্ষ মানুষকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। তবে এবার শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষ্যে এর প্রায় দ্বিগুণ অর্থাৎ ৮০ লক্ষ টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে।

বলে রাখি, গত ১৭ই সেপ্টেম্বর ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জন্মদিন। এদিন ভারতে প্রায় আড়াই কোটি জনগণকে করোনার টিকা দিয়ে সর্বোচ্চ টিকাকরণের রেকর্ড গড়ে ভারত।

You might also like
Comments
Loading...