বাংলাদেশ

বাংলাদেশের যাত্রীবাহী লঞ্চে ভয়াবহ আগুন, মৃত অন্ততপক্ষে ৩২, নিখোঁজ বহু

বাংলাদেশের যাত্রীবাহী লঞ্চে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। রাজধানী ঢাকা থেকে কিছুটা দূরেই মাঝনদীতে যাত্রীভর্তি লঞ্চে বিধ্বংসী আগুন লেগে যায়। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই অগ্নিকাণ্ডে এখনও পর্যন্ত ৩২ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা। নিখোঁজ একাধিক যাত্রী।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, গতকাল, বৃহস্পতিবার সন্ধেয় ঢাকা থেকে বাংলাদেশের দক্ষিণের বরগুনার উদ্দেশে যাচ্ছিল ওই লঞ্চটি। রাত ৩টে নাগাদ লঞ্চটি ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে পৌঁছয় রাত। সেখানেই সেই সময় আচমকাই আগুন লেগে যায় লঞ্চটিতে।

লঞ্চটি নোঙর করার পরই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার কাজ শুরু করে দমকলের ৫ টি ইঞ্জিন। কিন্তু এর আগেই আগুনে পুড়ে মৃত্যু হয় একাধিক যাত্রীর। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, লঞ্চটি থেকে ৩২ জনের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পুড়ে জখম হয়েছেন  বহু যাত্রী। মৃত ও আহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এদিন রাজারহাট-বি নামের আর একটি লঞ্চ ঘাটে পৌঁছলে সেটির যাত্রীরা জানান, “দূর থেকে দেখেছি লঞ্চটিতে আগুন জ্বলছে”। বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলি জানান যে দগ্ধ অবস্থায় অন্তত বহু যাত্রীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে অনেকেই নিখোঁজ এখনও পর্যন্ত।

জানা গিয়েছে, ওই লঞ্চটিতে প্রায় ১ হাজার যাত্রী ছিল। সেখানকার যাত্রীদের কথায়, লঞ্চটিতে আগুন লেগে যাওয়ার পর লঞ্চটিকে নদী তীরের দিয়াকুল এলাকায় নোঙর করা হয়। এরপর খবর পেয়েই বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিটের আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগায়।

কিন্তু সূত্রের খবর, ঘন কুয়াশা থাকার কারণে সমস্যা হয়। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে যে লঞ্চের ইঞ্জিন থেকেই আগুন লেগেছে। তবে আগুন লাগার সঠিক কারণ এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি।

Related Articles

Back to top button