ব্যাবসা, বাণিজ্য ও অর্থনীতি

এবার GST-এর আওতায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারে পেট্রোল-ডিজেল ও বিয়ারও, এক ধাক্কায় ৪০ টাকা কম হতে পারে পেট্রোলের দাম

ট্যাক্স বা কর, এই শব্দটির সঙ্গে আমরা সকলেই বেশ পরিচিত। নানান দেশেই এই করপ্রথা চালু রয়েছে। আর তা কয়েক বছর আগে থেকেই। ২০০০ বছর আগে রোমান সম্রাট অগাস্টাস প্রথমবার করপ্রথা চালু করেছিলেন। আমাদের দেশেও নানান ক্ষেত্রে বহাল রয়েছে এই ব্যবস্থা।

নানান ভারতীয় শাস্ত্র যেমন অর্থশাস্ত্রতে নানান কর বা ট্যাক্সের কথা উল্লেখ করা রয়েছে। এখন নানান ক্ষেত্রেই কর বিষয়টি দেখতে পাই আমরা। ভারতে চালু রয়েছে GST যা প্রায় নানান জিনিসের উপরেই লাগু রয়েছে শুধুমাত্র বিয়ার ও পেট্রোল-ডিজেল ছাড়া।

তবে এবার মনে করা হচ্ছে যে এই দুটি জিনিসকেও এবার GST-এর আওতায় আনা হতে পারে। ২৮ ও ২৯শে জুন চণ্ডীগড়ে রয়েছে GST কাউন্সিলের বৈঠক। সেই বৈঠকেই পেট্রোল ও বিয়ারকে GST-এর অন্তর্ভুক্ত করা নিয়ে আলোচনা হতে পারে বলে জানা যাচ্ছে। এই বৈঠকের আগেই প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারম্যান বিবেক দেবরায় পেট্রোল-ডিজেল ও বিয়ারকে GST-এর আওতায় আনার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বটে। এমনটা যদি সত্যি হয়, তাহলে পেট্রোল-ডিজেল ও বিয়ারের দাম যে অনেকটাই কমে যাবে, তা বলাই বাহুল্য।

একটি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষে পেট্রোল এবং ডিজেল থেকে কেন্দ্র এবং রাজ্য ৬ লক্ষ কোটি টাকার কর পেয়েছিল। অন্যদিকে, ২০১৯- ২০ আর্থিক বর্ষে দেশজুড়ে মদ বিক্রির মাধ্যমে ১.৭৫ লক্ষ কোটি টাকার লাভ হয়।

এখন এক লিটার পেট্রোলের দাম ১০৫.৪১ টাকা। এর মধ্যে দিল্লির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সেখানে কেন্দ্র ও রাজ্যের মোট ট্যাক্সের পরিমান ৪৮.৩৪ টাকা। তবে যদি এই দামে ২৮ শতাংশ GST বসে, তাহলে পেট্রোলের বেস প্রাইস ৫৩.২৮ টাকার সঙ্গে মাত্র ১৪.৯১ টাকার ট্যাক্স এবং ৩.৭৮ টাকার ডিলার কমিশন নিয়ে ১ লিটার পেট্রোলের দাম গিয়ে দাঁড়াবে মাত্র ৭১.৯৭ টাকাতে।

আবার অন্যদিকে, এখন ৯০০ টাকার মধ্যে ভারতে তৈরি বিদেশী ম’দ কিনলে তার জন্য ট্যাক্স দিতে হয় ৩৫ শতাংশ। আর ৯০০ টাকার বেশি হলে, তার জন্য ট্যাক্স দিতে হয় ৪৫ শতাংশ। তবে ১০০ টাকার বিয়ারের বোতলে সরকার ট্যাক্স নেয় ৪৫ টাকার। এখন যদি বিয়ারের দামে ২৮ শতাংশ GST লাগু হয়, তাহলে বিয়ারের বোতলের দাম কমে যাবে ১৭ টাকা। আর সরকারের কাছে ৪৫ টাকার বদলে ট্যাক্স যাবে ২৮ টাকা।

Related Articles

Back to top button