সব খবর সবার আগে।

ঠাকুমার ফোন চুরি! আমাজনের সিইওকে চিঠি লিখে ক্ষতিপূরণ পেলেন মুম্বইয়ের এক ব্যক্তি!

কিছুদিন আগে ঠাকুমার জন্য অনলাইন শপিং সাইট আমাজন ইন্ডিয়াতে (Amazon India) সাধারণ একটি নোকিয়া ফোন অর্ডার দিয়েছিলেন। মুম্বইয়ের বাসিন্দা ওঙ্কার হান্মাতে। টাকাও আগেভাগেই মিটিয়ে দিয়েছিলেন অনলাইন পেমেন্টের মাধ্যমে। কিন্তু ফোন হাতে পাননি। কিন্তু অদ্ভুতভাবে স্ট্যাটাস দেখাচ্ছে, ডেলিভারি হয়েছে। এরপরে ওই ব্যক্তি কাস্টমার সার্ভিসে ঘটনার কথা জানালে তাঁকে বলা হয়, তদন্ত চলছে‌। এরপরই আমাজনের পরিষেবায় বিরক্ত ওঙ্কার হান্মাতে সোজা চিঠি লেখেন আমাজন সিইও জেফ বেজোসকে (Jef Bejos)। ফল‌‌ও মেলে হাতেনাতে। কয়েকদিনের মধ্যে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেন আমাজন এক্সিকিউটিভরা, ফোনের দাম তাঁকে দিয়ে দেওয়া হয়।

জেফ বেজোস নিজে জানিয়েছেন, ক্রেতাদের প্রতিটি ইমেল খুঁটিয়ে পড়েন তিনি। তবে সরাসরি জবাব দেন না, পাঠিয়ে দেন সংশ্লিষ্ট এক্সিকিউটিভের কাছে। ওঙ্কারের ক্ষেত্রেও তাই হয়, তাঁর দেওয়া সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখেন এক্সিকিউটিভরা। দেখা যায়, ফোন ঠিক ঠিকানায় পৌঁছনো হলেও মালিকের হাতে তুলে দেওয়া হয়নি, ডেলিভারি পার্সন সোসাইটির গেটেই তা রেখে দিয়ে আসেন। এরপর একজন সেই পার্সল তুলে নিয়ে হাঁটতে হাঁটতে চলে যায়। ফোনের দাম ওঙ্কারকে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

কি লিখেছিলেন ওঙ্কার? অভিযোগ করে তিনি লেখেন আপনাদের কাস্টমার সার্ভিস ও ডেলিভারির নিয়মকানুন নিয়ে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ। আমাজন থেকে যে ফোন অর্ডার করেছিলাম, তা হাতে তো আসেইনি, উল্টে রেখে গিয়েছিল সোসাইটি গেটে, তা চুরি হয়ে গিয়েছে। ডেলিভারির ব্যাপারে কোনও ফোনও আসেনি আমার কাছে। এরপরেও আপনাদের কাস্টমার সার্ভিস বারবার বলে চলেছে, তদন্ত চলছে, আর আমি কোনও রোবটের সঙ্গে কথা বলছি কিনার মত স্ট্যান্ডার্ড রিপ্লাই। গোটা ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ পাঠাচ্ছি আমি। পুরো ঘটনা অত্যন্ত বিরক্তিকর, এরপরেও আমাজন থেকে কিছু কিনতে গেলে আমায় ভাবতে হবে।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...
Share