ভাইরাল

রেলের চাকরি পছন্দ নয়, ‘বিশেষ ট্রেনিং’ নিয়ে চুরিবিদ্যায় হাত পাকিয়েছে এমএ পাশ যুবক, ঘাটালে গ্রেফতার উচ্চশিক্ষিত চোর

কথাতেই রয়েছে ‘চুরিবিদ্যা মহাবিদ্যা’। আর তাই-ই হয়ত ভালো চাকরি ছেড়ে চুরিবিদ্যাকেই সম্বল করে নিয়েছেন এক উচ্চশিক্ষিত যুবক। এই যুবকের বিরুদ্ধে ওঠা চুরির অভিযোগে হতবাক খোদ পুলিশই। অভিযুক্তের ঝুলিতে রয়েছে ইংরেজিতে এমএ পাশের ডিগ্রি।

ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালে। এই উচ্চশিক্ষিত যুবকের বিরুদ্ধে মোট ১৭০টি চুরির অভিযোগ রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ঘাটালে এক বিদ্যুৎ কর্মীর বাড়িতে চুরির ঘটনায় গ্রেফতার হয় ওই যুবক। নাম সৌমাল্য চৌধুরী। চুরির জন্য আবার এ প্রশিক্ষণও নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

পুলিশ জানায় যে চোরের অভিযোগে অভিযুক্ত সৌমাল্য আসলে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজিতে এমএ পাশ করেন। খড়গপুরের দক্ষিণ-পূর্ব রেলের একজন কর্মী তিনি। তিনি আসলে আসানসোলের বাসিন্দা। বর্তমানে রেলের এক অস্থায়ী কর্মী হিসেবে কাজ করেন সৌমাল্য। কিন্তু সেই কাজ নাকি তাঁর ভালো লাগে না। তাই পেশা বদলে চুরিবিদ্যায় হাত পাকান উচ্চশিক্ষিত সৌমাল্য।

জানা গিয়েছে, আসানসোলে থাকাকালীন এলাকার এক যুবকের কাছ থেকে চুরির প্রশিক্ষণ নেয় সৌমাল্য। তদন্তকারীদের সন্দেহ, এখনও পর্যন্ত মোট ১৭০টি চুরি করেছে সে। এমনকী, কয়েক মাস কয়েক আগে হাওড়া আন্দুলের একটি ফ্ল্যাট থেকে ১০ লক্ষ টাকার সোনার গয়না চুরির ঘটনায় সৌমাল্যকে পাঁশকুড়া থেকে গ্রেফতার করে সাঁকরাইল থানার পুলিশ।

প্রসঙ্গত, ঘাটাল পুরসভার ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে কোন্নগরে ভাড়া বাড়িতে থাকেন ঘাটাল বিদ্যুৎ দফতরের কর্মী মহাশ্বেতা দে। তিনি বাড়িতে চাবি দিয়ে অফিসে গিয়েছিলেন। কিন্তু অভিযোগ, গতকাল সোমবার বাড়ি ফিরে তিনি দেখেন যে বাড়ির চাবি ভাঙা। সঙ্গে সঙ্গে ঘাটাল থানায় চুরির অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

এরপরই চোরের সন্ধানে তৎপর হয় পুলিশ। সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখে পুলিশ। বিদ্যুৎ দফতরের ওই কর্মীর অভিযোগ, তাঁর বাড়ি থেকে প্রায় লক্ষাধিক টাকার গয়না চুরি গিয়েছে। মহিলার অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে ঘাটাল থানার পুলিশ। রবিবার পূর্ব মেদিনীপুর মেচগ্রাম থেকে সৌমাল্যকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রের খব্রব অনুযায়ী, সৌমাল্য এক মানসিক রোগে আক্রান্ত। এই রোগের কারণেই সে চাল চাকরি ছেড়ে চুরিকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছে সে। সৌমাল্যকে ঘাটাল আদালতে তোলা হলে তাকে পাঁচদিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত।

Related Articles

Back to top button