ভাইরাল

Umbrella শব্দের বানান Amrela! ইংরেজিতে কেন ফেল করানো হয়েছে, অভিযোগ জানিয়ে রাস্তায় বসে বিক্ষোভ উচ্চমাধ্যমিকে ফেল পড়ুয়ার

গত সপ্তাহেই প্রকাশিত হয়েছে উচ্চমাধ্যমিকের ফলাফল। এবছরের পরীক্ষার ফল ভালো হলেও বেশ কিছু পড়ুয়া পাশ করতে পারে নি পরীক্ষায়। আর এর জেরে রাজ্যের নানান প্রান্তের নানান স্কুলের পড়ুয়ারা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছে। এক নয়, একাধিক স্কুলের ফেল করা পড়ুয়ারা প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

উচ্চমাধ্যমিকে পাশ না করায় রাস্তায় বসে বিক্ষোভ দেখাল পড়ুয়ারা। কেউ কেউ যশোর রোড অবরোধ করে। তারা হুমকি দেয় যে তাদের যদি উচ্চমাধ্যমিকে পাশ না করানো হয়, তাহলে তারা অনশন করবে।

জানা যাচ্ছে, উত্তর ২৪ পরগণার কুমুদিনী স্কুলে এই বছর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দেয় ২৭৯ জন পড়ুয়া। এদের মধ্যে ৩৭ জন ইংরেজি ও অন্যান্য বিষয়ে পাশ ল্রতে পারে নি। সেই কারণে আজ, সোমবার সকাল থেকেই অকৃতকার্য পড়ুয়ারা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। তাদের দাবী, তাদের ইচ্ছা করেই ফেল করানো হয়েছে।

পড়ুয়াদের দাবী, তাদের যদি পাশ না করানো হয়, তাহলে তারা অনশন করবে। এরই মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও। তাতে দেখা যাচ্ছে যে এক সাংবাদিক বিক্ষোভরত ছাত্রীদের মধ্যে একজনকে প্রশ্ন করছেন যে তারা কেন বিক্ষোভ দেখাচ্ছে। সেই ছাত্রীর কথায়, তারা অন্যান্য সব বিষয়ে ভালো নম্বর পেয়েছে, কিন্তু ইংরেজিতে তাদের ইচ্ছা করে ফেল করানো হয়েছে।

এরপরই ওই সাংবাদিক ওই ছাত্রীকে প্রশ্ন করেন যে ছাতা অর্থাৎ Umbrella শব্দের বানান কী? প্রথমে সেই ছাত্রী উত্তর দিতে না চাইলেও, অনেক ভেবেচিন্তে সে উত্তর দেয়, ‘Amrela’। তারপর রীতিমতো সাংবাদিকের উপর বিরক্ত হয় যে কেন তাকে এমন প্রশ্ন করা হচ্ছে। ইউটিউবার স্যান্ডি সাহা এই ভিডিওটি শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এই ভিডিওটি শেয়ার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তুমুল ভাইরাল হয়েছে। নেটিজেনরা এই ভিডিও দেখে হতবাক। এক উচ্চমাধ্যমিকের পড়ুয়া Umbrella শব্দের বানান বলছে Amrela। আর তাদের দাবী কেন তাদের ইংরেজিতে ফেল করানো হয়েছে!

নেটিজেনদের কেউ কেউ বলেছেন, কেন তারা ইংরেজিতে ফেল করেছে এবার বোঝাই যাচ্ছে। আবার কেউ কেউ বলেছেন, একটা তৃতীয় বা চতুর্থ শ্রেণিতে পড়া বাচ্চারাও Umbrella বানান সঠিক বলতে পারবে, আর উচ্চমাধ্যমিকের এক পড়ুয়া সেই বানান বলতে পারল না। এই ভিডিও দেখে বেশ সমালোচনার ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

Related Articles

Back to top button