আন্তর্জাতিক

করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করার জন্য উহান ল্যাবকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া উচিত, দাবী চীনের

গত দেড় বছর ধরে করোনা ভাইরাসের জেরে গোটা বিশ্ব সন্ত্রস্ত হয়ে রয়েছে। কোটি কোটি মানুষ এই আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে।  লক্ষ লক্ষ মানুষের প্রাণহানি হয়েছে এই মারণ ভাইরাসের জেরে। । চীনের ল্যাব থেকেই এই ভাইরাস ছড়িয়েছে, এমনটাই দাবী বিশ্ববাসীর। এই নিয়ে চলছে তদন্ত। এরই মধ্যে চীনের বিদেশমন্ত্রী দাবী করলেন যে এই করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করার জন্য চীনের উহান ল্যাবকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া উচিত।

চীনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র জাও লিজিয়ান সম্প্রতি একটি সাংবাদিক সম্মেলন করেন। নানান দেশ থেকেই অভিযোগ তোলা হয়েছে যে এই করোনা ভাইরাস চীনের উহান ল্যাবে তৈরি করা হয়েছে। এরপর সেই ভাইরাসকে ইচ্ছাকৃত ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বা তা কোনওভাবে সেই ল্যাব থেকেই লিক করেছে। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে যোগ দিয়ে জাও লিজিয়ান এর তীব্র বিরোধিতা করেন।

এই বিষয়ে যুক্তি খাড়া করে তিনি বলেন, “যারা প্রথম কোনও ভাইরাস আবিষ্কার করেছেন যদি তারা দোষী হন, তাহলে যিনি এইচআইভি ভাইরাস আবিষ্কার করেছেন, সেই প্রোফেসর লাক মন্টাগনিয়ারও এইডস রোগের জন্য দায়ী, তাহলে তাঁকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া উচিত হয়নি। লুইস পাস্তুর যিনি মাইক্রোবস আবিষ্কার করেছিলেন, তিনিও এই বিশ্বের সমস্ত ব্যাকটেরিয়া-ঘটিত রোগের জন্য দায়ী”।

তিনি আরও বলেন, “এই যুক্তি অনুযায়ী, উহান ল্যাবের সেই দলকেও নোবেল পুরস্কার দেওয়া উচিত যারা করোনা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করেছেন। তাদের এভাবে কটাক্ষ করাও উচিত নয়।“

সম্প্রতি প্রকাশিত হওয়া ‘দ্য ওয়াল স্ট্রীট জার্নাল’-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি তথ্য বলছে প্রথম করোনা ভাইরাসের সন্ধান পাওয়ার প্রায় একমাস আগেই উহান ল্যাবের তিনজন কর্মী অসুস্থ হয়ে পড়েন।

এই রিপোর্ট প্রকাশের পর মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন এই করোনা ভাইরাস নিয়ে আরও বেশি তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। এই ভাইরাসের উৎস কী, এই সংক্রান্ত সমস্ত তদন্ত আগামী ৯০দিনের ম্লদ্ধে শেষ করতে হবে, এমনটাই নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

Related Articles

Back to top button