সব খবর সবার আগে।

CoronaVirus: প্রতি শীতেই কি এবার ছড়াবে করোনাভাইরাস? আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণ কি এবার প্রতি বছর একটা নির্দিষ্ট সময়ে ছড়িয়ে পড়বে? তেমনটাই আশঙ্কাই করছেন মার্কিন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ-এর গবেষক-বিজ্ঞানীরা। তাঁদের মতে, অবিলম্বে এর টিকা এবং চিকিৎসা পদ্ধতি আবিষ্কার না হলে বছরের নির্দিষ্ট সময়ে এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা প্রবল।

আপাতত আমেরিকা ও চিনে দু’টি ওষুধ মানবদেহে প্রয়োগ করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চললেও তার চূড়ান্ত ফলাফল জানতে এক থেকে দেড় বছর সময় লাগবে। তাই আগামী বছর শীতের মরসুমে ফের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ব্যাপক আকার নেওয়ার আশঙ্কা উড়িয়ে দেননি আমেরিকার সরকারি ভাবে সংক্রামক রোগের গবেষণায় নেতৃত্ব দেওয়া অ্যান্টনি ফাউচি। পরের বছর শীত আসার আগেই তাই করোনার চিকিৎসা ও টিকা চূড়ান্ত করার ব্যাপারে জোর দিয়েছেন তিনি।

কেন এমন আশঙ্কা? বুধবার ফাউচি জানিয়েছেন, গবেষণায় উঠে এসেছে মূলত শীতের সময়েই এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে। তিনি বলেন, ‘‘আমরা যেটা দেখছি আফ্রিকার দক্ষিণ অংশে এবং দক্ষিণ গোলার্ধের দেশগুলিতে শীতের সময়েই এই ভাইরাস ছড়িয়েছে। শীতের মরশুমেই ছড়াচ্ছে, এটার ভিত্তি যদি প্রমাণিত হয়, তাহলে আগামী শীতের মরশুমের আগে আমাদের প্রস্তুত থাকতেই হবে।’’

পাশাপাশি তার আশ্বাস, ‘‘এই কারণেই আমরা একটা ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা করছি। দ্রুত পরীক্ষা করে সেটাকে যাতে আগামী শীতের মরশুমের আগেই চূড়ান্ত করে ফেলা যায়, তার চেষ্টা চালাচ্ছি।’’ ফাউচি আরোও বলেন, ‘‘বর্তমানে দু’টি টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে— একটি আমেরিকায় এবং একটি চিনে। কিন্তু সেটা চূড়ান্ত হতে এক থেকে দেড় বছর সময় লাগবে।’’

শীতের মরসুমেই যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যায়, সেটা এখনও প্রমাণিত নয়। চিনের একটি গবেষণাও একই দাবি করেছিল।

কিন্তু মূলত শীতেই করোনার বাড়বাড়ন্তের বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দিয়েছেন ফাউচি। তাঁর মতে, “শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে যে ‘ড্রপলেট’ ছড়িয়ে পড়ে, শীতের আবহাওয়ায় তা বেশিক্ষণ বাতাসে কার্যকর থাকতে পারে। আবার শীতের আবহাওয়ায় ইমিউনিটি পাওয়ার বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে। অন্য একটি কারণ হল, ভাইরাসের শরীরে ‘ফ্যাট’-এর একটি আস্তরণ তৈরি হয়। গরম কোনও তলের উপর পড়লে বা থাকলে সেই ‘ফ্যাট’ দ্রুত শুকিয়ে যায় এবং অকার্যকর হয়ে যায়।”

এই আতঙ্কের মধ্যেই আপাতত বিশ্বের বৈজ্ঞানিক মহলের একটাই প্রার্থনা, ‘অবিলম্বে তৈরী হোক করোনার টিকা।’

Get real time updates directly on you device, subscribe now.