আন্তর্জাতিকদেশ

মুখ পুড়িয়ে শেষমেশ ভারত থেকে ফের জীবনদায়ী ওষুধ আমদানি শুরু করলো পাকিস্তান।

জম্মু কাশ্মির থেকে ভারত ৩৭০ ধারা বিলোপের পরই তেঁতে ওঠে পাকিস্তান। উত্তেজনা ছড়াতে পাকিস্তান নেয় একের পর এক আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। যেমন, ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিন্ন করা, সামঝোতা এক্সপ্রেস এবং দোস্তি বাস পরিষেবা বন্ধ ইত্যাদি আরও নানান সিদ্ধান্ত। এরপরই আরও গভীর সমস্যায় পরে ইমরান সরকার৷

 

একেতো পাকিস্তান সরকারের আর্থিক দিক পুরোপুরি থিতিয়ে পরেছে। তার ওপর ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করে আরও সমস্যা পরেছে পাকিস্তান। বিভিন্ন জীবনদায়ী ওষুধগুলোর জন্য পাকিস্তান প্রধানত নির্ভরশীল ভারতের ওপরই। তাই দু দেশের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বিছিন্ন হয়ে যাওয়ায় পাকস্তানে দেখা দিতে শুরু করে জীবনদায়ী ওষুধের অভাব৷ ধীরে ধীরে এরজন্য রোগীরা মৃত্যুর মুখে ঢলে পরতে থাকে৷ তাই অবশেষে একপ্রকার বাধ্য হয়েই ভারতের সঙ্গে ওষুধ নিয়ে বাণিজ্যের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান৷

পূর্বে পাক সরকারের তরফে নির্দেশ জারি করা হয়েছিল যে ভারতের নিকট থেকে কোনো ওষুধ আমদানি করা যাবেনা। শেষে চাপের মুখে পাক শিল্প দফতরের তরফে আজ একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলা হয় যে, ভারত থেকে জীবনদায়ী ওষুধের আমদানির ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে পাক সরকার। বলা বাহুল্য একসময় বড়ো বড়ো কথা বলে শেষে মুখ পুড়িয়েই ফের ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক সূচনা করলো পাকিস্তান নিজেই।

Related Articles

Back to top button