আন্তর্জাতিক

করোনার টিকা নিলে মানুষ সমকামী হয়ে যাবে, দাবী ইরানের মুসলিম ধর্মগুরুর

সারা বিশ্বে করোনা ভাইরাস প্রবল আকার ধারণ করার পর থেকেই বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশের বিজ্ঞানীরা ভ্যাকসিন বানানোর চেষ্টায় লেগে পড়েন। অবশেষে প্রায় এক বছরের মাথায় করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়। অনেক দেশেই শুরু হয়ে গিয়েছে করোনার টিকাকরণ। ভারতেও তা শুরু হয়েছে গত মাসেই।

ভ্যাকসিন তৈরির পর থেকেই নানা ধরণের গুজব ছড়াতে থাকে। তবে যতই মিথ্যে গুজব ছড়াক না কেন, ভ্যাকসিন অভিযানও চলছে পাল্লা দিয়েই। তবে এখনও পর্যন্ত অনেক মানুষই রয়েছেন যারা ভ্যাকসিন নেওয়ার বিরুদ্ধে। শুধু বিরুদ্ধেই নন, ভ্যাকসিন অন্যদেরও না নেওয়ার জন্য রীতিমতো মানুষকে উস্কাচ্ছেন তাঁরা ও মিথ্যে যুক্তি খাড়া করছেন। এদের মধ্যেই একজন হলেন ইরানের এক মুসলিম ধর্মগুরু।

এই মুসলিম ধর্মগুরু আয়াতুল্লাহ আব্বাস টেলিগ্রাম নামক সোশ্যাল মিডিয়ায় ভ্যাকসিন না নেওয়ার বিপক্ষে এক অদ্ভুত যুক্তি দিয়েছেন। এই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর দু’লক্ষের ওপর ফলোয়ার্স রয়েছে। তিনি দাবী করেছেন যে “যারা করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছেন, তাদের কাছে যাবেন না। কারণ তাঁরা সমকামী হয়ে গিয়েছেন”।

তাঁর এই অদ্ভুত যুক্তির তীব্র নিন্দা করেছেন LGBT ক্যাম্পেনার পিটার টেসেল। তিনি বলেন যে মুসলিম ধর্মগুরুর এই বয়ান টিকা ও সমকামী মানুষের জন্য অত্যন্ত অপমানজনক। উল্লেখ্য, এর আগেও এই ধর্মগুরু পাশ্চাত্য দেশের ওষুধ নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন মত প্রকাশ করেছিলেন। গত বছরের জানুয়ারি মাসে একটি ভিডিও বেশ ভাইরাল হয় যাতে দেখা যায় যে এই ধর্মগুরু এক আমেরিকান বিজ্ঞানীর বই জ্বালিয়ে দিচ্ছেন। এই বই জ্বালিয়ে তিনি দাবী করেন যে ইসলামিক ওষুধ নাকি এই বইগুলিকে অপ্রাসঙ্গিক বানিয়ে দিয়েছে।

বলে রাখি, ইরানে সমকামিতা অপরাধ। ১৯৭৯ সালে ইসলামিক বিপ্লবের সময় দেশের হাজার হাজার সমকামীকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল। ২০১৯ সালে ইরানের বিদেশমন্ত্রী মহম্মদ জাবিদ জারিফ দাবী করেন যে তাদের সমাজের নৈতিক সিদ্ধান্ত আছে আর তাঁরা সে সিদ্ধান্তের ভরসায় চলেন।

Related Articles

Back to top button