সব খবর সবার আগে।

জইশ প্রধান মাসুদ আজহারকে রাজার হালে রাখছে পাক সরকার, অভিযোগ ট্রাম্প প্রশাসনের

পাকিস্তানকে বলা হয় সন্ত্রাসবাদের আঁতুড়ঘর। আর এ কথা যে ভুল নয়, তা আবার প্রমাণ করল পাকিস্তান। আমেরিকার সূত্র মারফত জানা গিয়েছে যে, পাকিস্তান সরকারের নিরাপদ আশ্রয়ে রয়েছে জইশ-ই-মহম্মদ প্রতিষ্ঠাতা মাসুদ আজহার এবং মুম্বই হামলার প্রধান চক্রী সাজিদ মির।

বুধবার এই চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস করেছে আমেরিকা। বেশ কিছু বছর ধরেই ইসলামাবাদকে সতর্ক করে চলেছে আমেরিকা কারণ পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদীদের আশ্রয় দেয় এই প্রমাণ বহুদিন ধরেই পাওয়া গিয়েছে। ওয়াশিংটনের অভিযোগ, পাকিস্তান তাদের কথা কানেই তুলছে না। পাক সরকার আজহার ও মিরের মতো অন্যান্য সন্ত্রাসবাদী নেতাদের গ্রেফতার এবং বিচারের কোনও উদ্যোগই নেয়নি। উপরন্তু এই সমস্ত জঙ্গি নেতাকে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে‌‌। আর এতেই বেজায় চটেছে আমেরিকা।

এর আগে দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এ বিষয়ে অভিযোগ জানালেও এই প্রথমবার ট্রাম্প সরকার পাকিস্তানের বিরুদ্ধে এই বিষয়ে প্রকাশ্যে কড়া মনোভাব জানাল। যদিও ২০১৯ সালে আমেরিকার নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক চাপের কাছে নতিস্বীকার করে পাকিস্তান এবং হাফিজ সইদকে গ্রেফতার করা হয়। পাকিস্তানের দাবি এই লস্কর নেতাকে এখনও জেল থেকে ছাড়া হয়নি।

তবে বুধবার মার্কিন স্বরাষ্ট্র দপ্তরের সন্ত্রাসবাদ সংক্রান্ত ২০১৯ সালের একটি রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে, সেখানে অবশ্য লস্কর-ই-তৈবা প্রতিষ্ঠাতা হাফিজ সইদ ও তার ১২ জন সঙ্গীর বিচার নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছে আমেরিকা।

তবে এই বছর যে পাকিস্তানকে সহজে ছেড়ে কথা বলবেনা ট্রাম্প সরকার তা তাঁদের বর্তমান হুঁশিয়ারি থেকেই দিনের আলোর মতো স্পষ্ট। উপরন্তু ভারত সরকারও সন্ত্রাসবাদ প্রসঙ্গে পাকিস্তানকে কোণঠাসা করার সুবর্ণ সুযোগ পেল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। ভারত ও আমেরিকা এবার যে যৌথভাবে পাকিস্তানকে চাপে ফেলতে চলেছে তা বোঝাই যাচ্ছে।

You might also like
Leave a Comment