সব খবর সবার আগে।

পাকিস্তানে মোদী ম্যানিয়া! সিন্ধু প্রদেশের স্বাধীনতার দাবিতে নরেন্দ্র মোদীর প্ল্যাকার্ড হাতে আন্দোলনে হাজার হাজার মানুষ

পাকিস্তানের হাত থেকে নিষ্কৃতি পেতে সিন্ধু প্রদেশের ভরসা নরেন্দ্র মোদী? একটি ভিডিওতে এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি উঠেছে। প্রসঙ্গত, বেশ কিছুদিন ধরেই স্বাধীনতার দাবিতে উত্তাল পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশে।

ওই অঞ্চলের বিভিন্ন জায়গায় মিছিল ও অবস্থান বিক্ষোভ করে নিজেদের দাবির পক্ষে আন্দোলন করছেন হাজার হাজার মানুষ।

আর এবার সেই রকমই একটি আন্দোলনে দেখা গেল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্টপ্রধানদের ছবি। প্রকাশ্যে আসা মিছিলের ভিডিওতে বিক্ষোভকারীদের বিভিন্ন স্লোগানের ফাঁকে পাকিস্তানের হাত থেকে নিষ্কৃতি পাইয়ে দেওয়ার জন্য নরেন্দ্র মোদী-সহ বাকি রাষ্ট্র নেতাদের কাছে আবেদন জানাতেও শোনা গিয়েছে।

এইপ্রসঙ্গে ওই বিক্ষোভের অন্যতম নেতা ও জে সিন্ধ মুত্তাহিদা মাহাজের চেয়ারম্যান শাফি মুহম্মদ বুরফাত জানিয়েছেন, অতীত থেকে বর্তমান, সবসময়ই সিন্ধুপ্রদেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতির উপর বর্বরোচিত আক্রমণ হয়েছে। তবে শত আঘাত সত্ত্বেও নিজেদের ইতিহাসকে স্মরণ রেখে নিজস্ব সংস্কৃতি গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন এখানকার মানুষ।

তিনি জানান অতীত থেকেই অন্যদের সংস্কৃতি, ধর্মীয় রীতিনীতিকে দূরে ঠেলে সরিয়ে দেওয়ার শিক্ষা পায়নি সিন্ধুর বাসিন্দারা। বরং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মানব সভ্যতার উন্নয়নের জন্য এই সমস্ত বিষয়ে সমঝোতার মানসিকতা নিয়ে চলেছে। অন্যদের ভাল জিনিস থেকে নিজেদের উন্নত করেছে। কিন্তু, প্রথমে বিট্রিশ ও পরে পাকিস্তানের সরকার সিন্ধুপ্রদেশের সেই আদর্শকেই ধ্বংস করার ক্রমাগত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।’

সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গিয়েছে, রবিবার পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের সান এলাকায় স্বাধীনতার দাবিতে মিছিল বের করেছিলেন কয়েক হাজার মানুষ। তাঁদের দাবি, সিন্ধুপ্রদেশ হল সিন্ধু সভ্যতার ঘর। বৈদিক ধর্মের সূচনাও হয়েছিল এই অঞ্চল থেকেই। কিন্তু, অবৈধভাবে এই জায়গা দখল করে রাজত্ব চালানোর পর বিট্রিশ সাম্রাজ্যবাদীরা ১৯৪৭ সালে তা পাকিস্তানের হাতে। আর পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর থেকেই  সিন্ধুপ্রদেশের প্রাচীন ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি নষ্ট করার চেষ্টা চালাচ্ছে ইসলামাবাদ। এর হাত থেকে নিষ্কৃতি পেতেই বেশ কিছুদিন ধরে স্বাধীনতার দাবিতে আন্দোলন করছেন সিন্ধুপ্রদেশের বেশিরভাগ বাসিন্দা। রবিবার সেই রকম একটি মিছিলেই দেখা যায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা-সহ বিভিন্ন রাষ্ট্রপ্রধানের ছবি। 

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...