সব খবর সবার আগে।

কয়েক ঘন্টার ব্যবধান, একদিকে আফগান পুলিশের কনভয় হামলা, অন্যদিকে তালিবান ঘাঁটিতে বিমান হানা

তালিবানদের ঘাঁটিতে মার্কিন হামলা। শুক্রবার আফগান পুলিশের ওপর তালিবানদের হামলার মাত্র কয়েক ঘণ্টা যেতে না যেতেই তালিবান (Taliban) সেনা ঘাঁটি লক্ষ্য করে জোড়া বিমান হামলা চালাল মার্কিন সেনা। মার্কিন সেনার মুখপাত্র কর্নেল সনি লেগেট আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিম প্রান্তে এই বিমান হামলার কথা জানান।

গতমাসে চলতি রমজান ও ঈদের কারণে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছিল তালিবানরা। কিন্তু তাতে থেমে থাকেনি তাদের মারণ লীলা। অন্যদিকে আফগান পুলিশদের ওপর হামলার চকও আগে থেকেই কষে রেখেছিল তারা। শুক্রবার আফগানিস্তানের দক্ষিণে একটি এলাকায় তালিবানরা আগে থেকেই রাস্তার ধারে ধারে বিস্ফোরক মজুদ রেখেছিল বলে জানা যায়। আফগান পুলিশের কনভয় সেখান দিয়ে যাওয়ার সময় আচমকাই বিস্ফোরণ ঘটে এবং কমপক্ষে ১০ জন পুলিশকর্মী শহিদ হন।

তবে তালিবানরা সেই সমস্ত হামলার দায় গ্রহণ করেনি।কিন্তু সন্দেহের হিটলিস্টে যে তারাই রয়েছে সেকথা বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে তালিবান জঙ্গিদের এই যু্দ্ধবিরতির সময়কালেই তাদের ঘাঁটিতে হামলা চালায় মার্কিন সেনা।

মার্কিন সেনার মুখপাত্র কর্নেল সনি লেগেট জানান, “শুক্রবার একটি বিমান হামলা চালানো হয়েছিল পশ্চিম ফারাহ (Farah) প্রদেশে। ওই হামলার প্রধান লক্ষ্য ছিল ২৫ তালিবান যোদ্ধা।” এর আগেও বৃহস্পতিবার রাতে দক্ষিণ কান্দাহার প্রদেশে হামলা চালিয়েছিল আমেরিকা। গত ফেব্রুয়ারিতে তালিবানদের সঙ্গে শান্তিচুক্তি হওয়ার পর থেকে হামলা চালানো বন্ধ করে দিয়েছিল আমেরিকার তরফে।কিন্তু চুক্তির আগে তালিবান ঘাঁটি লক্ষ্য করে একটি মাত্র হামলা তারা চালিয়েছিল।আফগান সরকারের এক মুখপাত্র জানান, “ফারাহ প্রদেশে বিমান হানায় কমপক্ষে ৩ জন তালিবান কম্যান্ডার মারা গেছেন। এছাড়াও আরো ১৩ তালিবান সদস্য মারা যায় ।”

অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের মুখপাত্র তারিক আরিয়ান জানান, “তালিবান হামলার কনভয়ে বিস্ফোরণে আফগান পুলিশের একাধিক গাড়ি ধ্বংস হয়েছে। পুলিশের পালটা প্রতিরোধে ৪ তালিবানও নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। তালিবানেরা পুলিশের উপর হামলার দায় মেনে নেয়নি। যুদ্ধবিরতি শেষ হওয়ার পর থেকে যত হামলা চলেছে তার মধ্যে মাত্র একটি ক্ষেত্রে হামলার দায় নিয়েছে তালিবান জঙ্গিরা।” গত ফেব্রুয়ারিতে তালিবানদের সঙ্গে শান্তিচুক্তি হওয়ার পর থেকে আফগানিস্তান থেকে ধীরে ধীরে সেনা তুলে নিচ্ছে আমেরিকা। আফগানিস্তানে চলতি হিংসা, রক্তপাত বন্ধ করতেই এই চুক্তি করেছিল আমেরিকা। তালিবানদের উপর হামলাও বন্ধ হয়েছিল। কিন্তু, তালিবানরা আর মানলো কই। তারা এই সুযোগেও ফের হামলা শুরু করেছে। তাই মার্কিন সেনাও তাদের পাল্টা জবাব দিয়ে হামলা চালিয়েছে।

You might also like
Leave a Comment