কলকাতারাজ্য

জোড়া সাপ দেখেই এলিয়ট পার্কে হাঁটা বন্ধ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। রইল তাঁর অভিজ্ঞতা।

গতকাল এসএসকেএম হাসপাতালের ট্রোমা কেয়ার সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে গিয়েই সাপের কামড়ে রোগী মৃত্যুকে কেন্দ্র করে তিনি শোনালেন নিজের এক অভিজ্ঞতার কাহিনী।

সম্মুখেই বসে ছিলেন জুনিয়র এবং সিনিয়র ডাক্তাররা। আর তাদের সামনেই সাপের কামড় জনিত চিকিৎসা নিয়ে বলতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী শোনালেন তাঁরই জীবনের এক অভিজ্ঞতার কাহিনী। যার জেরে তিনি এলিয়ট পার্কে হাঁটা পর্যন্ত বন্ধ করে দিয়েছেন৷

 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কৃষকদের জুতো না পরে কাজ করা এবং সাপের কামড় এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বলেন যে, তাঁর নিজেরও এই বিষয়ে ক্ষতি হতে পারে কারণ তিনি হাওয়াই জুতো পরে থাকেন৷ তাঁর কথায়, ” স্নেকবাইট প্রথমে পায়ে হয়।এটা আমার পক্ষেও ডেঞ্জারাস, আমি তো হাওয়াই চটি পরি সারাক্ষণ।”

এরপরই তিনি তুলে ধরেন এলিয়ট পার্কে হাঁটতে গিয়ে তাঁর অভিজ্ঞতার কথা। তিনি জানান যে, “এখানে এলিয়ট পার্ক রয়েছে৷ আগে আমি হাঁটতে যেতাম। এখন আর যাই না, গরম আর বর্ষাকালে বিশেষ করে।কারণ আমি একদিন গিয়ে দেখেছিলাম, দুটো সাপ ফণা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। একটা সাপ তো জল দিয়ে..সাঁতার কেটে উঠছে পুকুর দিয়ে। এগুলো কি সাপ? কোথা থেকে এলো? তা জিজ্ঞাসা করার পর পুলিশ আমায় বলল ঢোরা সাপ৷ আমি বললাম মোটেই না! দুটো সাপ দেখছি পেরিয়ে যাচ্ছে, দুটো সাপ দেখছি দাঁড়িয়ে ফণা মারছে! এমনকি জল কম থাকলে কীভাবে ওঠে, বলে কি ড্রেন দিয়ে ওঠে।’’

এরপর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান যে, সাপের বিষ মারাত্মক। আর তাই মানুষকে প্রাণে বাঁচাতে কেন্দ্রর তরফে সাপের বিষের প্রতিষেধক আরও বেশি করে পাঠানো উচিৎ। এই নিয়ে তৃণমূলের পক্ষ থেকে দাবী জানানো হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Related Articles

Back to top button