কলকাতা

মাংস কিনতে গিয়ে ‘গায়েব’ মহিলা, এর পিছনে রয়েছে মুরগির দোকানের মালিকের হাত, দাবী নিখোঁজ মহিলার পরিবারের

সুদের পাওনা টাকা আনতে গিয়ে কার্যত গায়েব হয়ে গেলেন মহিলা। নাম ননিবালা গাইন। বয়স ৪০। জানা গিয়েছে, গত ১৯শে জুন তারিখ থেকে নিখোঁজ ওই মহিলা। নিউটাউনের কাছে গৌরাঙ্গনগর অটো স্ট্যান্ডের কাছে মাংস আনতে গিয়েছিলেন ওই মহিলা আর তারপর থেকেই তাঁর আর কোনও খোঁজ নেই। এই ঘটনায় গৌরাঙ্গনগর অটো স্ট্যান্ডে অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে নিউটাউন থানার পুলিশ।

সূত্রের খবর, গত ১৯শে জুন রাকতে সুদের পাওনা টাকা আদায়ের জন্য বেরিয়েছিলেন শুলংগুঁড়ি দক্ষিণ পাড়ার বাসিন্দা ননিবালা গাইন। গৌরাঙ্গনগর অটো স্ট্যান্ডের কাছে রয়েছে বিনয় মণ্ডল ও মৃন্ময় মণ্ডলের মুরগির দোকান। জানা যাচ্ছে ব্যবসার জন্য ১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা নিয়েছিলেন ওই দুই ব্যক্তি। সেই পাওনা টাকাই আদায়ে গিয়েছিলেন ননিবালাদেবী।

কিন্তু অভিযোগ, তাঁকে দোকানে ঢুকতে দেখলেও, কেউ তাঁকে দোকান থেকে বেরোতে দেখে নি। অনেক রাত পর্যন্তও ননিবালাদেবী বাড়ি না ফিরলে খোঁজখবর শুরু করে তাঁর পরিবার। খবর দেওয়া হয় থানায়। বিনয় মণ্ডল ও মৃন্ময় মণ্ডলকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে নিউটাউন থানার পুলিশ।

ওই মহিলা কোথায় গেলেন, তা নিয়ে বেশ আতঙ্কে ভুগছে তাঁর পরিবার। পরিবারের অভিযোগ, ওই মহিলাকে ‘গায়েব’ করে দেওয়া হয়েছে। এখনও পর্যন্ত ওই মহিলাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এর জেরে রাস্তা অবরোধ করে প্রতিবাদ করে স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছয়।

নিখোঁজ মহিলার পরিবারের অভিযোগ, “আমাদের কাছে কোনও ফোন আসেনি। কিছুই বুঝে উঠতে পারছি না। অপহরণ করা হয়নি নিশ্চিত। গুম করে দেওয়া হতে পারে। টাকা চাইতে যাওয়ায় কারোর রোষের শিকার হতে পারে”। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করলেও এখনও পর্যন্ত তেমন কোনও সূত্র মেলেনি বলেই জানা গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button