কলকাতা

লকডাউনে ফাঁকা রাস্তায় মদ্যপ অবস্থায় রেসিং, বেহালায় ফুটপাতে উঠল গাড়ি, জখম ৫

ফের ফাঁকা রাস্তায় গাড়ির রেষারেষি কলকাতায়, জখম হল পাঁচ যুবক। রাতের কলকাতায় দামী গাড়ি ও মদ খেয়ে রেসিং এর ঘটনা নতুন কিছু না। এর জেরে প্রাণও গিয়েছে সাধারণ মানুষ থেকে ডিফেন্স অফিসারের। লকডাউনেও যে এই রেসিং প্রবণতি কমেনি তা গতকাল রাতের ঘটনাতে আরও একবার স্পষ্ট।

ঘড়ির কাঁটায় রাত তখন ১০টা। বেহালার জেমস লং সরণিতে লকডাউনের জেরে ফাঁকা রাস্তায় রেসিংয়ে মত্ত একদল যুবক। ফাঁকা রাস্তা দিয়ে হাওয়ার বেগে ছুটছে গাড়ি। চলছে রেষারেষি। শেষে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফুটপাথে উঠে গেল গাড়ি। ধাক্কা মারল লাইটপোস্টে। ঘটনাস্থলেই আহত হয়েছেন ৫ জন। 

করোনার জেরে লকডাউন চলছে। রাস্তায় কোনও গাড়িঘোড়া নেই। মানুষজনেরও দেখা নেই। আর সেই সুযোগেই রাতের ফাঁকা রাস্তায় গাড়ি নিয়ে রেসিংয়ে মেতে ওঠে একদল স্থানীয় যুবক। এলকাবাসীর অভিযোগ, প্রতিদিনই চলে এই রেসিং। একদল ছেলে এলাকায় জড়ো হয়। তাঁদের মধ্যে কেউ কেউ স্থানীয়। আবার কেউ কেউ বাইরে থেকে আসে। দামি চারচাকা নিয়ে সবাই জড়ো হয় এলাকায়। 

তারপর গাড়ির মধ্যেই বসে মদের আসর। চলে দেদার মদ্যপান। তারপর শুরু হয় ফাঁকা রাস্তায় রেস। রবিবারও ঠিক এমনটাই ঘটেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁরা জানান, রেসিং করার সময়ই দুর্ঘটনাটি ঘটে। ফুটপাথে গাড়ি নিয়ে উঠে পড়ে একদল। ধাক্কা মারে লাইটপোস্টে। স্থানীয়দের অভিযোগ, কোনওরকম পুলিশের উপস্থিতি না থাকার কারণেই রোজ রাত বাড়তেই এই গাড়ি নিয়ে রেসিং চলছে। এই ঘটনায় রীতিমত বিরক্ত স্থানীয় বাসিন্দারা।

রবিবার রাতে দুর্ঘটনার পর উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। গাড়ি ভাঙচুর করেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে ঠাকুরপুকুর থানার পুলিস। ৩টি গাড়িকে আটক করে পুলিশ। গাড়ির ভিতর থেকে উদ্ধার হয় মদের বোতল। গাড়ি রেসিংয়ের ঘটনায় ইতিমধ্যেই ৮ জন যুবককে আটক করেছে পুলিস।

Related Articles

Back to top button