সব খবর সবার আগে।

কীভাবে পাঠানো হবে পরিশোধিত বিল, এখনো ঠিক করে উঠতে পারছে না সিইএসসি

বিদ্যুৎ বিল পাঠানো নিয়ে সিইএসসির সঙ্গে সাধারণ মানুষের সংঘাত গতমাসে বারবার খবরের শিরোনামে উঠে এসেছিল। প্রত্যেক গ্রাহকেরই জুন মাসের বিলে মোটা অঙ্ক ধার্য করা হয়েছিল। সেই সময় রাজ্য সরকার গোটা পরিস্থিতি সামাল দিয়েছিল এই বলে যে জুনের বিল সংস্থার তরফ থেকে খতিয়ে দেখে পাঠানো হবে। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে যে আগস্ট মাস পড়ে গেল তবুও কোন পথে এইবিল খতিয়ে পাঠানো হবে তা এখনও ঠিক করে উঠতে পারেনি সংস্থা। নতুন বিল পাঠানোর জন্য আগামী সপ্তাহে পর্যালোচনা হবে তারপরেই গ্রাহকরা পাবেন নতুন বিল এরকমটাই জানানো হয়েছে সংস্থা তরফে।

কিন্তু এপ্রিল ও মে মাসের মিটার রিডিং থেকে কী করে জুন মাসের মিটার রিডিং আলাদা করা হবে তা এখনো বুঝে উঠতে পারছেনা এই সংস্থা। সংস্থা জানিয়েছে যে গ্রাহকদের বুঝতে হবে এই কাজ প্রকৃত পক্ষে সম্ভব নয় তাই বিল পাঠানো হবে গড় করেই।

গতমাসে সিইএসসি যখন বিদ্যুৎ বিল পাঠায় তখন তা দেখে চক্ষু চড়কগাছ হয় গ্রাহকদের। খোদ বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতেই মাত্রাছাড়া অঙ্কের বিল ধরায় এই বেসরকারি সংস্থা। এদিকে সংস্থাটি দাবি করেছে যে লকডাউন এর জেরে এপ্রিল-মে মাসে মিটার রিডিং না নিতে পারায় তা জুন মাসের সঙ্গে জুড়ে পাঠানো হয়েছে।

সিইএসসি সূত্রে খবর, নতুন বিল পাঠালে সংস্থার আর্থিক অবস্থায় তার কী প্রভাব পড়তে পারে তা জানার চেষ্টা করছে সংস্থা। এপ্রিল ও মে-র বকেয়া বিল গ্রাহকদের কাছ থেকে কী ভাবে আদায় করা হবে তাও এখনও স্থির করে উঠতে পারেনি তারা।

তবে সিইএসসির এই চড়া হারে বিল পাঠানো নিয়ে কোনোরকম তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়নি রাজ্য সরকারের তরফ থেকে।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Leave a Comment