কলকাতা

হাতে লেখা প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে, উঠল সেই প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে যাওয়ার অভিযোগও

দেশের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা হচ্ছে , আর সেই পরীক্ষা প্রশ্নপত্র নাকি হাতে লেখা। এমনই ঘটনা ঘটল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস ম্যানেজমেন্ট বিভাগের একটি পরীক্ষায়।

গত রবিবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের আলিপুর ক্যাম্পাসে বিজনেস ম্যানেজমেন্ট বিভাগের পিএইচডি করার যোগ্যতা নির্ণায়ক পরীক্ষা ছিল। কিন্তু অভিযোগ, সেই পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ছিল হাতে লেখা। ২০২২ সালে দেশের অন্যতম সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র হাতে লেখা, তা যেন কেউই ঠিক বিশ্বাস করে উঠতে পারছিলেন না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একাধিক বর্ষীয়ান অধ্যাপক গত সোমবার জানান যে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে হাতে লেখা প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা হচ্ছে, এমন ঘটনার কথা তাঁরা আগে কখনও শোনেননি। এই বিষয় নিয়ে সোমবার ওই বিভাগের প্রধান শুভাশিস সাহাকে বলেন, “কোয়েশ্চেন সেটার যেমন প্রশ্নপত্র তৈরি করে দিয়েছেন,  পরীক্ষার্থীদের সেই প্রশ্নপত্রই দেওয়া হয়েছে। আমরা তাতেই পরীক্ষা নিয়েছি”।

রনি ঘোষ নামের এক পড়ুয়া এই পরীক্ষা দিয়েছেন। তিনি আবার জানান যে ওই পরীক্ষার অন্য দুই পরীক্ষার্থী নাকি জানিয়েছিলেন যে এই প্রশ্নপত্র তারা আগেই পেয়েছিলেন। রনি জানান এই বিষয়টি তিনি আগেই উপাচার্যকে ই-মেল করে জানিয়েছিলেন।

এই হাতে লেখা প্রশ্নপত্র ও সেই প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে যাওয়া, এই দুই বিষয়েই তদন্তের দাবী করেছে ছাত্র সংগঠন ডিএসও। এই সংগঠনের কলকাতা জেলা কমিটির সম্পাদক আবু সাঈদ এই বিষয়ে বলেন, “একটি পরীক্ষা নিতেবিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের যতটা দায়িত্বশীল হওয়া উচিত ছিল, আমরা মনে করি, কর্তৃপক্ষ তা হননি।বরং সম্পূর্ণ ভাবে উদাসীন থেকেছেনন”।

এই বিষয়ে সহ-উপাচার্য(শিক্ষা) আশিস চট্টোপাধ্যায় জানান, “ওই পরীক্ষার দায়িত্বসম্পূর্ণ ভাবে সংশ্লিষ্ট বিভাগের উপরে থাকে। এ তো আমরা দেখি না”। প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার প্রসঙ্গে তাঁর মন্তব্য, “এগুলোর তো কোনও প্রমাণ নেই। পুরোটাই গুজব”।

Related Articles

Back to top button