কলকাতা

উৎসবের মরশুমে বেড়েছে সংক্রমণের হার, নতুন করে চিন্তা বাড়াচ্ছে বায়ু দূষণ

এই সবে শেষ হয়েছে বাঙালীর সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজো। এই উৎসবের মরশুমেই পাল্লা দিয়ে বেড়েছে করোনা সংক্রমণের হারও। যা আশঙ্কা ছিল, তাই-ই এবার সত্যি হতে চলেছে। এই উৎসবের সময় যে পাঁচটি রাজ্যে করোনা সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশী, তার মধ্যে অন্যতম পশ্চিমবঙ্গ। এই তালিকায় বাকি চার রাজ্য হল কেরালা, মহারাষ্ট্র, কর্ণাটক ও দিল্লি।

এই বিষয় নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ ভূষণ জানান, ইতিমধ্যেই বিশেষ কেন্দ্রীয় দল উক্ত পাঁচ রাজ্য থেকে রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছে। তা খতিয়ে দেখার কাজও ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তাঁর থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, উৎসবের মরশুমে বাংলা ও কেরালায় আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী।

আবার নতুন করে চিন্তায় বাড়াচ্ছে বায়ুদূষণ। শীতের সময় বায়ু দূষণ বাড়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে। এর ফলে মানুষের স্বাস্থ্যের ঝুঁকি আরও বাড়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। এর জেরে পরিস্থিতি আরও ভয়ানক হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞেরা। এই শীতের সময় করোনা সংক্রমণও আরও জোরালো হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এই নিয়ে আগেভাগেই সতর্ক করে দিয়েছেন আইসিএমআর-এর ডিজি ডঃ বলরাম ভার্গব। এমনকি, অতীতে যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন, তারাও পুনরায় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে পারেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই জন্য বাইরে বেরোলেই সবসময় মাস্ক ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

ডঃ বলরাম ভার্গব বলেন, “সংক্রমণের পাশাপাশি করোনায় মৃত্যুর অন্যতম প্রধান কারণ হল বায়ু দূষণ। ইউরোপ ও আমেরিকায় সমীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে যে দূষিত এলাকায় করোনায় মৃত্যুর হার সবথেকে বেশী। সামনেই শীত আসছে। এর ফলে বায়ু দূষণ বাড়বে। তাই সকলকে সাবধানে থাকতে হবে, মাস্ক পড়ুন”।

অন্যদিকে, ভ্যাকসিন এলে তা ভারতবাসীদের বিনামূল্যে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন কেন্দ্র সরকার। এই প্রসঙ্গে আইসিএমআর-এর ডিজি ডঃ বলরাম ভার্গব জানান যে সম্পূর্ণ বিষয়টি স্পষ্ট হতে এখনও সময় লাগবে, ফলে সবাইকেই ধৈর্য ধরতে হবে।

Related Articles

Back to top button