সব খবর সবার আগে।

গান্ধী মূর্তির পাদদেশে বিজেপি কর্মসূচিতে বাধা পুলিশের, গ্রেফতার শুভেন্দু, দিলীপ

রানী রাসমনি রোডেই হওয়ার কথা ছিল কর্মসূচি। কিন্তু সেখানে বিজেপির কর্মসূচিতে অনুমতি দেয়নি পুলিশ। এই কারণে খানিকটা পুলিশের চোখে ধুলো দিয়েই মেয়ো রোডে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে জড়ো হন বিজেপি নেতারা।

কিন্তু সেখানে বিজেপি নেতারা পৌঁছনো মাত্রই অবৈধ জমায়েতের অভিযোগে মহামারি আইনের আওতায় গ্রেফতার করা হয় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে।

আরও পড়ুন- তৃণমূলের ‘খেলা হবে’ দিবসের সূচনা করলেন দিলীপ ঘোষ, ইকো পার্কে ফুটবল খেলায় মাতলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি

১৬ই আগস্ট খেলা হবে দিবসের পাল্টা পশ্চিমবঙ্গ বাঁচাও দিবসের ঘোষণা করা হয়েছিল রাজ্য বিজেপির তরফে। আজ ইকো পার্কে প্রাতঃভ্রমণ করতে গিয়েও দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন যে বিজেপি পুলিশের অনুমতি পাওয়ার আশায় ঘরে বসে থাকবে না। রাস্তায় তারা নামবেই। কিন্তু এদিন রাস্তায় নামতেই গ্রেফতার হতে হল বিজেপি নেতৃত্বদের।

জানা গিয়েছে, এদিন বেলা পৌনে দুটো নাগাদ গান্ধী মূর্তির পাদদেশে হাজির হন দিলীপ ঘোষ। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই পৌঁছন শুভেন্দু অধিকারীও। ছিলেন রাহুল সিনহা, দেবশ্রী চৌধুরীর মতো একাধিক বিজেপি নেতা। এদের সকলকেই গ্রেফতার করা হয়েছে বলে খবর। পুলিশের সঙ্গে শুভেন্দুর বেশ কিছুটা ধ্বস্তাধস্তি হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন- রাজনৈতিক তরজা তুঙ্গে, ‘খেলা হবে’ দিবসের পাল্টা এবার ‘পশ্চিমবঙ্গ বাঁচাও দিবস’ ঘোষণা বিজেপির

এদিন প্রিজন ভ্যান থেকেই এক বিজেপি নেতাকে বলতে শোনা যায়, “এই হচ্ছে রাজ্য সরকারের অবস্থা। নিজেরা খেলা হবের নামে মোচ্ছব করছে। আর গণতান্ত্রিক আন্দোলন করলেও গ্রেফতার করছে পুলিশ। রাজ্য সরকার বলছে উপনির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। কোভিড নাকি চলে গেছে। তাহলে বিজেপি রাস্তায় নামলেই গ্রেফতার করা হচ্ছে কেন?”

You might also like
Comments
Loading...