সব খবর সবার আগে।

জোকায় বাড়ি থেকে উদ্ধার স্বামী-স্ত্রী ও ছেলের ঝুলন্ত দেহ, রহস্যজনক মৃত্যু গোটা পরিবারের, তদন্তে পুলিশ

জোকায় বাড়ি থেকে উদ্ধার হল স্বামী-স্ত্রী ও তাদের ছেলের ঝুলন্ত দেহ। হতাশা, দারিদ্র নাকি মানসিক রোগ, কীসে গ্রাস করল এই পরিবারকে? নাকি তাঁরা কোনও ষড়যন্ত্রের স্বীকার। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে জোকার পাত্রপাড়ায়। মৃত ব্যক্তির নাম চন্দ্রব্রত মণ্ডল, বয়স ৫৭। তাঁর স্ত্রী মায়ারানী মণ্ডলের বয়স ৪৬ ও ছেলে সুপ্রিম মণ্ডলের বয়স ২৬। জানা গিয়েছে, চন্দ্রব্রতবাবু রাজ্যের সরকারী কর্মচারী ছিলেন। তাঁর স্ত্রী সাধারণ ছাপোষা গৃহবধূ ও ছেলে পেশায় ইঞ্জিনিয়ার।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গিয়েছে যে কোনওরকমের অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করা যেত না তাদের মধ্যে। বুধবার সকাল থেকেই পরিবারের কারোর কোনও সাড়াশব্দ না পাওয়ায় সন্দেহ হয় প্রতিবেশীদের। সকাল থেকে কাউকে বাড়ি থেকে বেরোতে বা ঢুকতেও দেখা যায়নি। বেলা গোঁড়ালে সন্দেহ বাড়ে স্থানীয়দের। খবর দেওয়া হয় ঠাকুরপুকুর থানায়।

ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে। ছাদের পাশের একটি ঘর থেকে তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে জানা গিয়েছে যে বাজার থেকে প্রচুর ধার করেছিলেন গৃহকর্তা। এমনকি, ব্যাঙ্ক থেকেও মোটা অঙ্কের টাকা ধার নেন তিনি। কিন্তু ঋণ শোধ করতে পারছিলেন না। বাজারেও দেনা বেড়ে চলেছিল। তাই প্রাথমিকভাবে আর্থিক কারণেই আত্মহত্যা বলে মনে করা হচ্ছে। মৃতদেহের কাছে কোনও সুইসাইড নোট মেলেনি। দেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনার সত্যতা বিচার করার জন্য তদন্তে নেমেছে ঠাকুরপুকুর থানার পুলিশ।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...