কলকাতারাজ্য

বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য চালু হচ্ছে ‘স্নেহের পরশ’ প্রকল্প, দেওয়া হবে ১,০০০ টাকা

করোনার সংক্রমন রুখতে কেন্দ্রীয় সরকার লকডাউনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। যাতে মানুষজন বাড়িতে থাকেন এবং সংক্রমন কম ছড়ায়। এই লকডাউনের দ্বিতীয় পর্যায় আগের বারের থেকে বেশি কড়া নজরদারী চালানো হচ্ছে। দেশজুড়ে বন্ধ রয়েছে সমস্ত গণপরিবহন। এর ফলে অন্য রাজ্যে কাজ করতে যাওয়া শ্রমিক সম্প্রদায়ের মানুষজন সেখানেই আটকে পড়েছেন। বিভিন্ন রাজ্য সরকার পরিযায়ী শ্রমিকদের বাসস্থান ও খাদ্যের ব্যবস্থা করে দেবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন। কিন্তু তাও অনেক পরিযায়ী শ্রমিকের ঘরে অন্ন পৌঁছচ্ছে না। তারা বারবার নিজ নিজ রাজ্য প্রশাসনকে অনুরোধ করছেন তাদের নিজ রাজ্যে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য। বারবার জানাচ্ছেন তাদের দুরাবস্থার কথা।

এবার ভিন রাজ্যে বাংলার শ্রমিকদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ করল রাজ্য সরকার। অনলাইনের মাধ্যমে তাঁদের জন্য কিছু টাকার ব্যবস্থা করবেন মমতা সরকার। ‘স্নেহের পরশ’ নামে এই প্রকল্পে ভিন রাজ্যে আটকে পড়া প্রত্যেক বাংলার শ্রমিককে হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। শুক্রবার নবান্নে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী সোমবার থেকেই এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ে যাবে বলে তিনি আশ্বাস দিয়েছেন।

ভিন রাজ্যে কাজে গিয়ে এই পরিস্থিতিতে আটকে পড়েছেন বাংলার বহু শ্রমিক। সেই সমস্ত শ্রমিকদের ন্যূনতম মৌলিক অধিকার অক্ষুন্ন রাখতে বিভিন্ন স্তর থেকে আবেদন আসে রাজ্য সরকারের কাছে। তাই সেই সব ক্ষুধার্থ মানুষদের কথা মাথায় রেখেই মুখ্যমন্ত্রী এই প্রকল্প ঘোষণা করলেন।

এছাড়াও এদিনের সভায় মুখ্যমন্ত্রী ফের আশ্বস্ত করেন, ‘এই রাজ্যে কোনো মানুষ না খেয়ে থাকবে না। রেশনে মাসে পাঁচ কেজি করে চাল দেওয়া হবে। রেশনসামগ্রী সংগ্রহ করতে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে সবাইকে। মানতে হবে স্বাস্থ্য বিধির নিয়মও।’ দুঃস্থ পরিবারগুলির পাশে রাজ্য সরকার আছে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

Related Articles

Back to top button