কলকাতা

‘ওরাই আসল হিরো, ওরাই তো তৈরি করেছেন’, শিয়ালদহ মেট্রো নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্কের মধ্যেই ভাইরাল নির্মাণকর্মীদের ছবি

শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন উদ্বোধন নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। কেন্দ্র ও রাজ্য যখন এই মেট্রো স্টেশনের কৃতিত্ব নিয়ে তরজায় জড়িয়েছে, তখনিক ভাইরাল হল এই মেট্রোর নির্মাণ কর্মীদের সেলফির ছবি। এই ছবি দেখে নেটিজেনদের মত, এরাই তো আসল হিরো।

গত সোমবার উদ্বোধন হয় শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশনের। এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সেখানে এদিন হাজির ছিলেন একাধিক সংবাদমাধ্যমের সাংবাদিকরা। ছিলেন উত্তরবঙ্গ সংবাদের চিত্র সাংবাদিক কৌশিক দত্তও। সেদিন অসংখ্য ছবির মধ্যেই মেট্রো রেকের সামনে দাঁড়িয়ে সেলফি তোলা তিন নির্মাণ কর্মীর ছবি ক্যামেরা বন্দি করেছিলেন কৌশিক।

সেই ছবি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া পেজে শেয়ার করে কৌশিক লেখেন, “যাঁরা এটা তৈরি করেছেন। শিয়ালদা মেট্রো স্টেশনের উদ্বোধন…”। আর এরপর বাকিটা ইতিহাস।

শিয়ালদহ মেট্রো স্টেশন নিয়ে রাজনৈতিক তরজার মধ্যেই গত মঙ্গলবার রাতে ওই ছবি শেয়ার করেন কৌশিক। আর মুহূর্তে তা রীতিমতো ভাইরাল হয়ে যায়। সেই ছবি শেয়ারের সংখ্যা যেন বাড়তে থাকে লাফিয়ে লাফিয়ে। কৌশিকের শেয়ার করা ওই ছবি পুনরায় আরও অন্যান্য ফেসবুক প্রোফাইল ও পেজ থেকে শেয়ার করা হয়,। নেটিজেনদের কথায়, এই মেট্রোর আসল হিরো এই নির্মাণকর্মীরাই।

এর পাশাপাশি কৌশিক দত্তেরও প্রশংসা করেছেন অনেকে এমন একটি মুহূর্ত তুলে ধরার জন্য।  একজন বলেছেন, “এই ছবিগুলো লাখ-কোটি টাকা দিয়েও কেনা যাবে না”। অপর এক নেটিজন বলেছেন, “শত শত সাম্রাজ্যের ভগ্নশেষ পরে ওরা কাজ করে। এটাই আসল ভালোলাগার ছবি। বাকি সব ঠুনকো, নকল”।

মানুষের এমন প্রতিক্রিয়ায় মুগ্ধ খোদ কৌশিকও। তিনি জানান, “যখন ছবি তুলেছিলাম, তখন রাজনৈতিক বিষয়ে ভাবিনি। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হঠাৎ দেখতে পাই যে ঘুরতে-ঘুরতে ট্রেনের কাছে সেলফি তুলছেন কয়েকজন শ্রমিক। ফোটোগ্রাফিক দৃষ্টিভঙ্গিতে ভালো লাগল। তাই ফেসবুকে পোস্ট করেছি। মনে হল, যাঁরা বানাচ্ছেন, তাঁরা তো আসলে কৃতিত্ব পান না”।

তবে তাঁর এই ছবি যে এতটা জনপ্রিয়তা পাবে, তা নিজেও ভাবেন নি কৌশিক। তাঁর কথায়, “শ্রমিকরাও যে হিরো হতে পারেন, সেই বিষয়টা মানুষ বিশ্বাস করছেন এবং তাতে স্বীকৃতি দিচ্ছেন, সেটা দেখে ভালো লাগছে”।

Related Articles

Back to top button