কলকাতা

ভোররাতে এক সাফাইকর্মী পার্ক সার্কাস রেললাইনের ধারে যা দেখলেন, ফের উঠল মনুষ্যত্ব নিয়ে প্রশ্ন!

ভোর তখন চারটে। শীতের সময় ভোর চারটে মানে একেবারেই অন্ধকার। এমন অন্ধকারাচ্ছন্ন ভোররাতে এক সাফাইকর্মী পার্ক সার্কাসে যা দেখলেন, তাতে ফের মনুষ্যত্বের উপর থেকে বিশ্বাস উঠে যাওয়ার মতোই।

সদ্যোজাত এক কন্যা সন্তানকে শীতের রাতে ফেলে রেখে পালাল মা। পার্ক সার্কাসের কাছে লোহাপুলের রেল লাইনের পাশ থেকে এই সদ্যোজাত কন্যা শিশুটিকে উদ্ধার করেন ওই সাফাইকর্মী। আজ, বৃহস্পতিবার ভোর চারটে নাগাদ ঘটে ঘটনাটি।

স্থানীয় বস্তির এক মহিলা উদ্ধার করেন ওই সদ্যোজাতকে। তিনিই পরিষ্কার করেন শিশুটিকে। এরপর খবর যায় বালিগঞ্জ জিআরপি-তে। জিআরপি-র তরফে সদ্যোজাত শিশুটিকে আইসিএইচ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুটির অবস্থা এখন খতিয়ে দেখছেন চিকিৎসকরা।

রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে মেয়েদের স্বাবলম্বী করার জন্য একাধিক প্রকল্প চালু করা হয়েছে। কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও-এর মত প্রকল্প নানান প্রকল্প রয়েছে। কিন্তু তবুও আজও এই ধরনের অমানবিক ঘটনা প্রায়শই ঘটে চলেছে। সদ্যোজাত কন্যা সন্তানকে রাস্তার পাশে ফেলে পালানোর ঘটনা তাই আকছাড় ঘটছে।

বলে রাখি, কিছুদিন আগেও এরকমই এক ঘটনার কথা শোনা যায়। সদ্যোজাত কন্যা সন্তানকে রাস্তার ধারে মাঠের মধ্যে খড়ের গাদার মধ্যে ফেলে যাওয়া হয়। এক মা কুকুরকে আগলে রাখতে দেখা গিয়েছিল সেই সদ্যোজাত শিশুটিকে। নিজের সদ্যোজাত সন্তানের সঙ্গেই পরম স্নেহে মানবশিশুটিকেও আপন করে নেয় ওই কুকুরটি।

Related Articles

Back to top button