কলকাতা

হাইকোর্টেও দৌরাত্ম্য তৃণমূলপন্থী আইনজীবীদের, এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলার তদন্ত সিবিআইয়ের হাতে দেওয়ায় কোর্টরুমের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ, ঢুকতে বাধা আইনজীবীদের

বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি নিয় সরব হয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। এই নিয়ে রাজ্য সরকারকেও তোপ দাগতে কসুর করেনি হাইকোর্ট। এসএসসির প্রাক্তন উপদেষ্টা শান্তিপ্রসাদ সিনহাকেও বারবার প্রশ্ন করা হলেও তাঁর কথায় অনেক অসঙ্গতি লক্ষ্য করেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। এরপরই এই মামলার তদন্তভার দেওয়া হয় সিবিআইয়ের হাতে।

সিবিআই তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্ত শুরু করলে এই মামলায় সরাসরি নাম জড়ায় রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। গতকাল, বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় নির্দেশ দেন যে গতকাল বিকেলেই তাঁকে সিবিআই দফতরে হাজিরা দিতে হবে। তবে সিঙ্গল বেঞ্চের এই নির্দেশকে ডিভিশন বেঞ্চে চ্যালেঞ্জ জানানো হলে, ডিভিশন বেঞ্চ একদিনের স্থগিতাদেশ দেয় হাজিরার নির্দেশের উপর।

আজ, বুধবার ফের এই মামলার শুনানি রয়েছে। কিন্তু এদিন সকাল সকালই কোর্ট চত্বরে দেখা মিলল এক নজিরবিহীন ঘটনার। দেখা গেল, তৃণমূলপন্থী আইনজীবীরা কোর্টের ১৭ নম্বর ঘরের সামনে বসে অবস্থান বিক্ষোভ করছেন। শুধু তাই-ই নয়, এই এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলার সঙ্গে যে সমস্ত আইনজীবীরা যুক্ত রয়েছেন, তাদের কোর্টরুমে ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছে।

সূত্রের খবর অনুযায়ী, এদিন কোর্টে ঢোকার সময় শারীরিকভাবে হেনস্থা করা হয় আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে। এসএসসি মামলার সঙ্গে যুক্ত কোনও আইনজীবীকে ঢুকতে দেওয়া হয় না কোর্টের ১৭ নম্বর রুমে। সেই রুমেই বসেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাস। আর এই এজলাসেই এদিন এসএসসি মামলার ফের শুনানি হওয়ার কথা।

তৃণমূলপন্থী আইনজীবীদের দাবী, বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় খুব অপরাধ করেছেন যে তিনি এই মামলার তদন্তের দায়িত্ব দিয়েছেন সিবিআইয়ের হাতে। এর থেকে প্রশ্ন উঠতেই পারে, রাজ্যের বিচারব্যবস্থাকেও প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে কী তাহলে তৃণমূল? তৃণমূলপন্থী আইনজীবীদের এমন বিক্ষোভ আদৌ কী যুক্তিসঙ্গত, তা নিয়েও ওঠে প্রশ্ন!

Related Articles

Back to top button